Date : 2022-01-26

তাপমাত্রার পারদ উর্দ্ধমুখী। ভোরের দিকে কুয়াশার দাপট দেখা যাচ্ছে

ওয়েব ডেস্ক : মকড় সংক্রান্তিতে গঙ্গার বিভিন্ন ঘাটে ঘাটে চলছে পুণ্যস্নান। কোভিডের ভয়াবহ পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে দিকে দিকে পুণ্যার্থীর সংখ্যাও কম দেখা যাচ্ছে। তবে এবছর শীত সেভাবে পড়েনি বলে আক্ষেপ শীত বিলাসী মানুষদের। অন্যান্য বছরের তুলনায় শীত কম এই বছর।

আলিপুর আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকবে ১৮.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে প্রায় ৪ ডিগ্রি বেশি। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকবে ২৫.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বাতাসে আদ্রতার পরিমান ৯৬ শতাংশ।

আবহাওয়া দফতর সূত্রে জানানো হচ্ছে, একের পর এক পশ্চিমী ঝঞ্জার প্রভাবে বাধা পাচ্ছে উত্তরে হাওয়া। বঙ্গোপসাগরে তৈরি হচ্ছে প্রচুর জ্বলীয় বাষ্প। আর সেই কারণেই বঙ্গে বৃষ্টির পূর্বাভাস। তবে তাপমাত্রার পারদ কতটা কমবে সেটা নিয়ে জ্বল্পনা থেকেই যাচ্ছে। তবে আবারও কী শীতের দেখা মিলবে সে দিকে নজর থাকছে সকলের।

চলতি মরসুমের শুরুর দিকে জাঁকিয়ে পড়েছিল শীত। এক ধাক্কায় অনেকটাই নেমে গিয়েছে তাপমাত্রার পারদ। তবে বড়ো দিনের আগে থেকেই উধাও শীতের আমেজ। বছর শুরু হওয়ার পর প্রায় দু-সপ্তাহ কেটে গেল। কিন্তু সেই ভাবে শীতের দেখা মেলেনি। আবার কবে শীতের দেখা পাওয়া যাবে তা নিয়ে এখনও জ্বল্পনা এখনও কাটছেনা। তবে ভোরের দিকে কুয়াশার দেখা পাওয়া যাচ্ছে।