Date : 2022-05-27

জট কাটল জোকা বিবাদীবাগ মেট্রো প্রকল্পর।সেনাবাহিনীর কোন আপত্তি নেই বলে জানিয়েছেন আদালতে

ষষ্ঠী চট্টোপাধ্যায়, রিপোর্টার : মেট্রোর যাত্রা শুরু ১৯৮৪ সালে। চালু হওয়া কলকাতা মেট্রো ভারতের প্রথম মেট্রো রেল পরিষেবা দ্বিতীয় মেট্রো পরিষেবা দিল্লি মেট্রো চালু হয় ২০০২ সালে। প্রাথমিকভাবে ঊনবিংশ শতাব্দীর বিশের দশকে এর পরিকল্পনা করা হলেও সত্তরের দশকে এর নির্মাণকাজ শুরু হয়৷ ১৯৮৪ সালে চালু হওয়া কলকাতা মেট্রোর প্রথম ধাপটি ছিলো ভবানীপুর (বর্তমান নেতাজি ভবন) থেকে এসপ্ল্যানেড অবধি দীর্ঘায়িত ছিল। ২০২০ খ্রিস্টা কলকাতা মেট্রোর লাইন-২ বা পূর্ব-পশ্চিম করিডোর চালু হয়।
দক্ষিণ কলকাতা থেকে ধীরে ধীরে উত্তর ২৪ পরগনায় হয়ে পৌঁছে গেছে রাজারহাট নিউটাউন পর্যন্ত।শেষ পর্যায়ে কাজ চলছে হাওড়া থেকে ধর্মতলা পর্যন্ত।
কিন্তু বাধ সেধে টালিনালা থেকে ধর্মতলার মেট্রো প্রকল্পের কাজ।দীর্ঘ দিন ধরে আটকে পড়ে থাকায় কলকাতা হাই কোর্টে দায়ের হয়েছিল জনস্বার্থ মামলা।
বেশ কয়েকটি শুনানিতে কেন আটকে আছে
টালিনালা থেকে ধর্মতলা পর্যন্ত মেট্রো সম্প্রসারনের কাজ?
মেট্রো কতৃপক্ষের তরফে জানানো হয়েছিল বাদসেধেছে সেনাবাহিনী ও ভিক্টরিয়া মেমোরিয়াল।তৎকালীন প্রধান বিচারপতি র নির্দেশে তৈরি হয়েছিল একটি হাই পাওয়ার কমিটি।যেখানে মেট্রো কতৃপক্ষ,সেনাবাহিনী, রাজ্যের বেশ কয়েকটি দফতর, সিইএস ই।
শুক্রবার মামলার শুনানিতে কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে সেনাবাহিনী র মেট্রো প্রকল্পের সম্প্রসারণে তাঁদের কোন আপত্তি নেই।
জট কাটল জোকা বিবাদীবাগ মেট্রো প্রকল্পর। সেনাবাহিনীর কোন আপত্তি নেই কলকাতা হাইকোর্টে জানিয়ে দিল তারা।
রাজ্য সরকারের বিভিন্ন বিভাগ থেকে অনুমোদন পেলেই টালি নালা থেকে ধর্মতলা পর্যন্ত মাটির নিচে মেট্রোর কাজ করতে পারবে আর ভি এন এল। কলকাতা হাইকোর্টের আইনি জটে ছিল ভিক্টোরিয়া এবং ময়দান অঞ্চলের মেট্রোর কাজ। সেনাবাহিনী ও আর ভি এন এল এর সঙ্গে বৈঠকের সিদ্ধান্ত আদালতকে জানিয়ে দেওয়া হল।
টালি নালা থেকে মেট্রোর কাজ শুরুর নির্দেশ দিলেন প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তব ও বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজের ডিভিশন বেঞ্চ।

গতির সাথে এগিয়ে চলেছে কলকাতার লাইফলাইন মেট্রো রেল। শহর সাথে শহরাঞ্চলেকে আর বেশি করে যুক্ত করার কাজ চলছে মেট্রো রেলের।