Date : 2022-10-01

চিনে গৃহবন্দি ৩৫ লক্ষ

পৌষালী সেনগুপ্ত, নিউজ ডেস্ক : কোভিড সংক্রমণ নিয়ে ত্রস্ত গোটা বিশ্ব। প্রতিনিয়তই রূপ বদলাচ্ছে করোনা ভাইরাস।প্রতিদিনই বিশ্ব তাঁর সঙ্গে পাল্লা দিতে নতুন পন্থা অবলম্বন করছে। কিন্তু করোনা সংক্রমণ যেন কিছুতেই বাগে আসছে না চিনে। শুরুতে কিছুটা বাগে আসলেও পরে আবার সেই সংক্রমণের হার উর্ধ্বমুখী।অতএব ৩৫ লক্ষ মানুষকে গৃহবন্দি করার সিদ্ধান্ত নিল চিন সরকার। ভিয়েতনাম ও চিন সীমান্তে অবস্থিত একটি শহরে সোমবার থেকে লকডাউন ঘোষণা করেছে বেজিং। দক্ষিণ গুয়াংসি প্রদেশের বাইসে নামের ওই শহরে বাস করেন অন্তত ৩৫ লক্ষ মানুষ। সম্প্রতি সেখানে ৭০জন মানুষের শরীরে করোনা ভাইরাস পাওয়া গিয়েছে।শহরের মানুষকে জনকে অন্যত্র যেতে দেওয়া হচ্ছে না। সোমবার অর্থাৎ আজ সম্পূর্ণ লকডাউন ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে শহরজুড়ে যান চলাচল ও লোকজনের চলাফেরা নিয়ন্ত্রণ করা হবে। শহরে বাইরে থেকে কোনও গাড়ি না মানুষ প্রবেশ করতে পারবে না। একইভাবে, কেউ শহর ছেড়ে অন্যত্র যেতে পারবেন না।সূত্রের খবর, ওই দুই দেশ থেকে অনুপ্রবেশের ঘটনায় উদ্বিগ্ন কমিউনিস্ট দেশটি।২০১৯ সালে চিনের ইউহান থেকেই প্রথম ছড়াতে শুরু করেছিল করোনা ভাইরাস। এরপর কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই তা ছড়িয়ে পড়ে গোটা বিশ্ব। এখনও সেই ভাররাসের ধাক্কা কাটিয়ে উঠতে পারেনি কোনো দেশই। যদিও এই ভাইরাস থেকে এখনো মুক্তি মেলেনি কারোরই। কিন্তু খুব তাড়াতাড়ি এই ভাইরাসকে নিয়ন্ত্রণে আনতে পেরেছিল চিন।যেভাবে বাকি বিশ্বের থেকে নিজেদের অবরুদ্ধ করে রেখেছে তা নিয়ে সমালোচনা হলেও এখনই ‘জিরো কোভিড’ নীতি থেকে সরতে রাজি নয় বেজিং।