Date : 2022-05-27

হংকং-এ চরমে করোনা পরিস্থিতি

রিমিতা রায়, নিউজ ডেস্ক : করোনার তৃতীয় ঢেউ অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে।করোনা কী এবার শেষ দাপট দেখিয়ে বিশ্ব থেকে বিদায় নিচ্ছে। এই ভেবেই আশার আলো দেখছে বিশ্ববাসী। বিশ্বের বহু দেশেই সংক্রমণের বাড়বাড়ন্ত আর নেই। বহু জায়গাতেই স্বাভাবিক পরিস্থিতিতে ফিরছে জনজীবন। তবে এরইমধ্যে চিনে যেন অন্য ছবি দেখা যাচ্ছে। বিশ্ব যখন তৃতীয় ঢেউ-এর দাপট কাটিয়ে ফের স্বাভাবিক হচ্ছে, খুলছে অফিস, কারখানা। তখন হংকং-এ এখনও করোনা পরিস্থিতি ভয়ানক । সে দেশে রোগীর ভিড়ে কম পড়ছে হাসপাতালের বেড। প্রায় প্রতিদিনই বাড়ছে সংক্রমণ। তা নিয়ন্ত্রণে আনতে প্রশাসন ফের লকডাউনের পথে যেতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। ডিসেম্বরের শেষের দিকে হংকং-এ ওমিক্রন পরিস্থিতি খারাপ হতে থাকে।

সেখানে সংক্রমণের প্রথম খোঁজ মেলে। তার পর থেকে দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে থাকতে ওমিক্রন। গত কয়েকদিনে ২০ হাজারেরও বেশি মানুষ সংক্রমিত হয়েছেন হংকং-এ। জানা গিয়েছে, হংকং-এ টিকা গ্রাহকদের সংখ্যাও কম। জানা গিয়েছে, হংকং-এ প্রায় ৭৫ লক্ষ মানুষের বসবাস। বর্তমানে এই ৭৫ লক্ষ মানুষের মধ্যে সংক্রমণ ছড়িয়েছে অতি দ্রুত। তা হয়েছে মাত্র দুই মাসের মধ্যেই। গত দুই করোনার ঢেউয়ে হংকং-এ মোট ১২ হাজার জন আক্রান্ত হয়েছেন। বর্তমানে এমন পরিস্থিতি যে রোগীদের জায়গা দিতে পারছে না স্থানীয় হাসপাতালগুলো। এর আগে ডিসেম্বরে ওমিক্রন আক্রান্তের খোঁজ পাওয়ার পর থেকে প্রশাসন দ্রুত কড়া কোভিড বিধি জারি করে। নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয় উড়ানে।বিধি-নিষেধ জারি করা হয় জমায়েত-অনুষ্ঠানে। কিন্তু তাতেও সংক্রমণকে আটকানো যায়নি। ওমিক্রন আক্রান্তরা ভিড় করছেন হাসপাতালের দরজায়। কোভিডের মৃদু উপসর্গ দেখা দিলে তারা পৌঁছে যাচ্ছেন হাসপাতালে। ভর্তির জন্য লম্বা লাইনও পড়ছে। এর মধ্যে সমস্যার অন্যতম কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে, হাসপাতালে মৃদু উপসর্গ থাকলেই ভিড় করছেন রোগীরা? করোনার আগের ঢেউ দেখেও প্রশাসন সঠিক পরিকল্পনা করতে পারেনি। এই অভিযোগ তুলছেন নাগরিকরা। অবশেষে পরিস্থিতি মোকাবিলায়। বেশ কয়েকটি বড় হাসপাতাল তৈরির সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।