Date : 2022-10-06

লস্কর-ই-তইবার কাছে তথ্য ফাঁসের অভিযোগে গ্রেফতার এনআইএ-র অফিসার

মাম্পি রায়, নিউজ ডেস্ক : কথায় আছে সর্ষের মধ্যে ভূত! এমনই কাণ্ড ঘটল জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা এনআইএর অন্দরে। জঙ্গি সংগঠন লস্কর-ই-তইবা’র সঙ্গে যোগাযোগ রাখার অভিযোগে নিজেদেরই এক আইপিএস অফিসারকে গ্রেফতার করল জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা বা এনআইএ।

শুক্রবার নয়াদিল্লি থেকে আইপিএস অফিসার অরবিন্দ দিগ্বিজয় নেগিকে গ্রেফতার করে এনআইএ। ওই আধিকারিক ছিলেন এনআইএর প্রাক্তন এসপি। একসময় জম্মু-কাশ্মীরে কর্মরত ছিলেন তিনি। হুরিয়ত কনফারেন্স নেতাদের আর্থিক লেনদেন ও জঙ্গিযোগ নিয়েও তদন্ত করেছিলেন নেগি। অভিযোগ, এনআইএ-র সঙ্গে কাজ করার সময়ই পাক মদতপুষ্ট জঙ্গি সংগঠন লস্কর-ই-তইবার হাতে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ গোপন নথি তুলে দেয় দিগ্বিজয় নেগি। পাকিস্তানের কুখ্যাত গুপ্তচর সংস্থা আইএসআইয়ের হাতেও নেগি তথ্য পাচার করত বলে জানা গিয়েছে। বেআইনি কার্যকলাপ প্রতিরোধ আইন অর্থাৎ ইউএপিএর আওতায় গ্রেফতার করা হয়েছে তাকে। এই মামলায় মোট ৬জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।  এদের মধ্যে অন্যতম খুররাম পারভেজ। গতবছর জম্মু কাশ্মীরের মানবাধিকার কর্মী খুররাম পারভেজকে গ্রেফতার করেছিল এনআইএ। তদন্তকারী সংস্থার দাবি, গুরুত্বপূর্ণ নথি লস্কর-ই-তৈবার একেবারে নীচের তলা পর্যন্ত পৌঁছে গিয়েছে। এসবই হয়েছে পারভেজের মাধ্যমে। অন্যদিকে ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে জন্মস্থান হিমাচলপ্রদেশের সিমলায় বদলি নিয়েছিলেন নেগি।

ঘটনার তদন্তে নেমে নেগির বিতর্কিত ভূমিকার কথা জানতে পারে এনআইএ। তারপরই নেগির সিমলার বাড়িতে তল্লাশি অভিযান চালায় এনআইএ। তদন্তকারী সংস্থার মুখপাত্র জানিয়েছেন, একজন সৎ এবং সাহসী অফিসার হিসাবেই পরিচিত দিগ্বিজয় নেগি। ২০১১সালের আইপিএস ক্যাডার বছর ৪৮এর দিগ্বিজয় নেগিকে পুরস্কৃত করা হয়েছিল। ২০১৭ সালে পুলিশ মেডেল পেয়েছেন তিনি। সাহসিকতার জন্য ভারত সরকার সম্মানিত করেছিল তাঁকে। নেগির ভূমিকা যাচাই করে দেখা হয়েছে। তাঁর বাড়িতেও তল্লাশি চালানো হয়েছে।