Date : 2022-05-27

অধীরকে ‘পুলিশি’ বাধা

রিমিতা রায়, নিউজ ডেস্ক : বগটুই যাওয়ার পথে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরীকে বাধা দেওয়ার অভিযোগ। দফায় দফায় পুলিশ তাঁকে বাধা দিয়েছে বলে অভিযোগ প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির। অধীরকে বাধা দেওয়ার অভিযোগে তুমুল বিক্ষোভ দেখায় কংগ্রেস কর্মী সমর্থকরা। মুখ্যমন্ত্রীর কনভয় ঘিরে চলে গো ব্যাক স্লোগান। একসময় গমগম করত রামপুরহাটের বগটুই গ্রাম।সেই গ্রামই আজ অভিশপ্ত।যেখানে সেখানে পড়ে রয়েছে ছাই।আতঙ্ক যেন জাঁকিয়ে বসেছে বগটুই গ্রামের বাসিন্দাদের মনে। সেদিনের রাত কেউ ভুলতে পারছেন না। ফের কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা রুখতে নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলা হয়েছে বগটুই গ্রামকে। বাসিন্দাদের আশ্বস দিতে গ্রামে ভিড় করছেন রাজনৈতিক দলের সদস্যরা। বৃহস্পতিবার বগটুই গ্রামে যাওয়ার পথে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরীকে বাধা দেওয়ার অভিযোগ। রামপুরহাট যাওয়ার পথে শ্রীনিকেতনে আটকানো হয় অধীরের কনভয়। আগে থেকে কর্মসূচি জানালেও তাঁদের পুলিশ বাধা দিয়েছে বলে অভিযোগ করেন অধীর।

রাস্তাতে বসে পরে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন অধীর।পুলিশ এক কথা বলছে, দিদি আরেক কথা বলছেন।সঠিক তথ্য লুকনো হচ্ছে, শাসকদলকে নিশানা অধীর রঞ্জন চৌধুরীর। অধীরকে আটকানোর অভিযোগে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন কংগ্রেস কর্মী সমর্থকরা। রামপুরহাট বাস স্ট্যান্ডের কাছে কংগ্রেসের অবস্থান বিক্ষোভ চলে। ওই রাস্তা দিয়েই রামপুরহাট হাসপাতালে পৌঁছন মুখ্যমন্ত্রী। হাসপাতালে যাওয়ার পথে মুখ্যমন্ত্রীর কনভয় ঘিরে বিক্ষোভ দেখায় কংগ্রেস কর্মী সমর্থকরা।চলে গো ব্যাক স্লোগান। আইনশৃঙ্খলার অবনতির প্রশ্নে রাজ্য। রাষ্ট্রপতি শাসনের দাবি জানিয়েছে বিজেপি।কংগ্রেস ৩৫৬ না চাইলেও রাজ্যে ৩৫৫ ধারা জারির পক্ষে রাষ্ট্রপতির কাছে চিঠি দিয়েছেন অধীর চৌধুরী।