Date : 2022-10-02

পথচারীদের জন্য সুখবর। তাদের জন্য এলো নতুন সিগন্যাল ব্যাবস্থা।

শাহিনা ইয়াসমিন, রিপোর্টার: রাস্তায় নেই কোন ট্র্যাফিক পুলিশ। নেই কোনও ট্র্যাফিক সিগন্যাল। সেইসব রাস্তায় পথচারীদের কথা ভেবে লালবাজার এবার নতুন সিগন্যাল ‘হাইব্রিড পথচারী বেকন’ লাগানোর সিদ্ধান্ত নিল। অর্থাত্‍ একজন পথচারী নিজেই সিগন্যালের সুইচ টিপে লাল আলো জ্বালিয়ে, দু’দিকের গাড়ি থামিয়ে রাস্তা পেরোতে পারবেন। রাস্তার অপর প্রান্তে চলে যাওয়ার পরে ওই সিগন্যাল স্বয়ংক্রিয়ভাবেই সবুজ হয়ে যাবে। লালবাজার সূত্রের খবর, ইতিমধ্যে শহরের কোথায় কোথায় ওই ‘হাইব্রিড পথচারী বেকন’ লাগানো যায় তা নিয়ে সমীক্ষা শুরু হয়েছে। যেসব রাস্তায় গাড়ির গতিবেগ ৫০ কিলোমিটারের কম এবং যেখানে কোনও সিগন্যাল পোস্ট নেই, সেখানেই ওই বিশেষ সিগন্যাল বসানো যেতে পারে। মূলত যেসব রাস্তায় ট্র্যাফিক পুলিশ থাকে না, সেখানেই ওই ব্যবস্থা চালু করা হবে। তবে লালবাজার সূত্রের খবর, কোনটাই এখনও চূড়ান্ত নয়।

তবে ওই সিগন্যাল সবসময়ে সচল থাকবে না। কোনও পথচারী সেখান দিয়ে রাস্তা পারাপার করতে চাইলে তিনিই সুইচ টিপে সচল করবেন ওই বেকনকে। সুইচ টিপে সিগন্যাল চালু করার প্রথম কয়েক সেকেন্ড সেখানে হলুদ আলো জ্বলবে-নিভবে। তার পরে কিছুক্ষণ স্থির ভাবে জ্বলে থাকার পরে সেখানে লাল আলো জ্বলে উঠবে। সে সময়ে গাড়ি চলাচল বন্ধ হয়ে গেলে পথচারী রাস্তা পারাপার করতে পারবেন।

তার পরে বেকনের ওই লাল আলো কিছুক্ষণ দপদপ করে আস্তে আস্তে নিজেই নিভে যাবে। তখন ফের গাড়ি স্বাভাবিক ভাবে চলাচল করতে পারবে।লালবাজার সূত্র মারফত যেটা জানা যাচ্ছে যে, কলকাতার রাস্তায় যে সিগন্যাল ব্যবস্থা চালু আছে, তার থেকে অনেক কম খরচে ওই ‘হাইব্রিড পথচারী বেকন’ সিগন্যাল পদ্ধতি লাগানো যাবে। গুরুত্বপূর্ণ সময়ে যখন পথচারীদের রাস্তা পারাপারের চাপ বেশি থাকবে, তখনই ওই সিগন্যাল কাজ করবে