Date : 2022-05-26

রাশিয়া ও ইউক্রেনের যুদ্ধ অব্যাহত, ব্যপক ক্ষতিগ্রস্ত ইউক্রেন

মাম্পি রায়, নিউজ ডেস্ক: প্রায় ২৫দিন পেরোলেও রাশিয়া ও ইউক্রেনের যুদ্ধ থামার নাম নেই। ভলোদিমির জেলেনস্কির সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, রুশ গোলার আঘাতে মৃত ২, আহত ৩জন। লিসিচানস্ক এবং লুহানস্কেও হামলা চালিয়েছে রাশিয়া। এখানেই শেষ নয়, সমুদ্রপথও আটকে রেখেছে রাশিয়া। কিভ, চেরনিহিভ, খারকিভ এবং ডনেৎস্কেও চলছে দেদার বোমাবর্ষণ। ১৩টি জায়গায় আক্রমণ প্রতিহত করেছে ইউক্রেন। তাদের হাতে ৩০০ রুশ সেনার মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি করেছে ইউক্রেন সরকার।  ইতিমধ্যে রুশ সেনার হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৬৫১টি আবাসন, ৩ হাজারের বেশি বাড়ি। এমনই দাবি করেছে  ইউক্রেন সরকার। আবাসন-বাড়ি মিলিয়ে ৪ হাজার ৪৩১ নির্মাণকাজ ধ্বংস করা হয়েছে। রাশিয়ার ছোড়া বোমা এবং গোলাগুলিতে ধূলিস্যাৎ হয়ে গিয়েছে সমস্তকিছু, জানাল ইউক্রেন। এই পরিস্থিতিতে মারিউপোলে উদ্ধারকাজ সম্পূর্ণ করাটাই  প্রধান লক্ষ্য বলে জানানো হয়েছে বলে বিবৃতি জারি করে জানাল ইউক্রেন সরকার। রাশিয়ার সঙ্গে এই নিয়ে দফায় দফায় আলোচনা।

এরইমধ্যে কিভ দখল করতে মরিয়া রাশিয়া। কিন্তু তা আখেরে আত্মহননের সমান, দাবি ভলোদিমির জেলেনস্কির উপদেষ্টা ওলেক্সি আরেস্তোভিচের। কিভের দাবি, ইউক্রেনের সর্বত্র মাইন ও বিস্ফোরক পোঁতা রয়েছে। ৮২ হাজার ৫২৫ স্কোয়্যার কিলোমিটার জায়গা বিপজ্জনক অবস্থায় রয়েছে। যুদ্ধে জয়ী হলেও আগে সেগুলি নিস্ক্রিয় করতে হবে। দুপক্ষের যুদ্ধের মধ্যেই  ইউক্রেনের অভিযোগ ক্রামাটর্সকে নিষিদ্ধ ফসফরাস বোমা বর্ষণ করছে রাশিয়া। ফসফরাসের মতোই জ্বলে-পুড়ে খাঁক হতে  হবে, বার্তা কিভের।

এরইমধ্যে আন্তর্জাতিক মহল এবং মানবাধিকার সংগঠনগুলির আবেদনে সাড়া দিয়ে  দফায় দফায় মানব করিডর গড়ে ইউক্রেনে আটকে থাকা সাধারণ মানুষকে উদ্ধারের চেষ্টা চলছে। দু’পক্ষই পরস্পরের বিরুদ্ধে সাময়িক যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘনের অভিযোগ তুলেছে।  রাশিয়া সাধারণ ইউক্রেনীয় নাগরিকদের কার্যত পণবন্দি করছে বলে অভিযোগ তুলেছে কিভ।