Date : 2022-05-26

রাশিয়ার অভিযোগ অস্বীকার করল ভারত

তথাগত চ্যাটার্জি, নিউজ ডেস্ক : ইউক্রেনের বিরুদ্ধে ভয়ঙ্কর অভিযোগ আনল রাশিয়া। দু-দেশের রক্তক্ষয়ী যুদ্ধ থামাতে এবার ইউক্রেনের বিরুদ্ধে দোষ চাপাল রাশিয়া। রাশিয়ার অভিযোগ, ইউক্রেনের পড়ুয়াদের পণবন্দি করছে রাশিয়া। দিন কয়েকে আগেই সীমান্তবর্তী এলাকায় ভারতীয় পড়ুয়াদের মারধর করার ভিডিও ভাইরাল হয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেই ভিডিও দেখে সরব হয়েছিলেন নেটাগরিকদের একাংশ। ইউক্রেনের বিরুদ্ধে তোপ দেগে রাশিয়ার অভিযোগ, ইউক্রেন থেকে কোনও ভারতীয়কে রাশিয়া বা অন্য কোনও দেশে যেতে দিচ্ছে না তারা। এই যুক্তি দেখিয়ে ইউক্রেনের বিরুদ্ধে নতুনভাবে বিরোধীতা তৈরি করতে চাইছে রাশিয়া। সাতদিনের বেশি কেটে গিয়েছে এই যুদ্ধের।

কিভ-সহ একাধিক ব়ড় শহরের দখল প্রায় নিযে ফেলেছে রাশিয়া। জলপথেও ইউক্রেনের বড় শহরগুলিকে কব্জা করতে চাইছে রাশিয়া। তবে রাশিয়ার এই অভিযোগ মানতে নারাজ ভারত। এই প্রসঙ্গে ভারতের বিদেশ মন্ত্রকের মুখপত্র অরিন্দম বাগচী জানিয়েছেন, ইউক্রেন দূতাবাসের তরফ থেকে ভারতীয়দের বন্দি করে রাখার কোনও প্রমাণ পাওয়া যায়নি। এই বিষয়ে তিনি একটি টুইটের সঙ্গে একটি দীর্ঘ পোস্ট করেছেন। বলা ভাল রাষ্ট্রসংঘে ইউক্রেন প্রসঙ্গে বৃহস্পতিবারও ভোটাভুটি থেকে বিরত থেকেছে ভারত। ইউক্রেন-রাশিয়া দুই পক্ষের মধ্যে কোনও পক্ষকেই এখনও পর্যন্ত সমর্থন করেনি ভারত। এর পাশাপাশি আরও একটি বিস্ফোরক দাবি করেছেন রাশিয়ার এক মন্ত্রী। তাঁর দাবি ইউক্রেনের বিরুদ্ধে পরমাণু অস্ত্র নিয়ে হামলা চালাতে পারে রাশিয়া। পাশাপাশি ইউক্রেনের টেলিভিশন টাওয়ারও ভেঙে দিয়েছে রুশ বাহিনী। জানা গিয়েছে, ইউক্রেনের একটি মেট্রো স্টেশনে হামলা চালিয়েছে রুশ সেনাবাহিনী। এছাড়াও বাংলাদেশের একটি পণ্যবাহী জাহাজও ধ্বংস করে দিয়েছে রাশিয়া সেনাবাহিনী। এই ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে এক জাহাজ কর্মীর। অপারেশন গঙ্গার মাধ্যমে দফায় দফায় ভারতে পড়ুয়াদের ফেরানোর কাজ চলছে। ফেরত আসা পড়ুয়াদের স্বাগত জানাতে দেখা যাচ্ছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের। কবে এই রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ থামবে তা বলবে সময়। তবে আপাতত দু-দেশের মানচিত্রে যুদ্ধের কালো মেঘ।