Date : 2022-05-26

মহার্ঘ্য জ্বালানি। রাজপথে তৃণমূল ছাত্র-যুব।

সঞ্জু সুর, রিপোর্টার : টানা আটদিনে সাতবার বেড়েছে পেট্রল, ডিজেলের দাম। দাম বেড়েছে গ্যাস এর। স্বাভাবিকভাবে নাভিশ্বাস উঠছে গৃহস্থের। এই অবস্থার প্রতিবাদে ও পেট্রপণ্যের মূল্যবৃদ্ধির বিরুদ্ধে মঙ্গলবার কলকাতার রাজপথে মিছিল করলো তৃণমূল ছাত্র পরিষদ ও তৃণমূল যুব কংগ্রেস। নেতৃত্ব দিলেন সায়নী, জয়া, তৃণাঙ্কুররা।

উত্তরপ্রদেশ সহ পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের পর থেকে যেভাবে প্রায় প্রতিদিন পেট্রল, ডিজেলের দাম বেড়ে চলেছে তাতে ছেঁকা খেতে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে। এই অবস্থায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এর নির্দেশে মঙ্গলবার হাজরা মোড় থেকে মেয়ো রোড পর্যন্ত মিছিলে সামিল হয়েছিলেন তৃণমূল ছাত্র পরিষদ ও তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সদস্যরা। তৃণমূল যুব কংগ্রেসের রাজ্য সভানেত্রী সায়নী ঘোষ, তৃণমূল ছাত্র পরিষদের চেয়ারপার্সন জয়া দত্ত বা তৃণমূল ছাত্র পরিষদের রাজ্য সভাপতি তৃণাঙ্কুর ভট্টাচার্য্যের নেতৃত্বে এই মিছিল হয়। প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত মিছিলে পা মেলান যুব নেত্রী শ্রেয়া পান্ডে, সায়নদেব চট্টোপাধ্যায়, পূজা পাঁজা, দক্ষিণ ও উত্তর কলকাতা জেলা তৃণমূল যুব সভাপতি সার্থক বন্দ্যোপাধ্যায়, শান্তি রঞ্জন কুন্ডু। অত্যধিক ভিড়ে কিছুটা বিশৃঙ্খল পরিস্থিতিতে মিছিল শুরু হলেও কিছুক্ষণের মধ্যে সার্থক, তৃণাঙ্কুর, জয়ারা মিছিলের ভিড়কে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসেন।

মিছিল প্রসঙ্গে বিজেপি কে উদ্দেশ্য করে সায়নী ঘোষ বলেন,”সাধারণ মানুষ কে নিয়ে আপনাদের কি পরিকল্পনা তা জানাতে হবে। এইভাবে পেট্রল ডিজেলের দাম বাড়িয়ে মানুষের জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলা যাবে না।”

তৃণাঙ্কুর ভট্টাচার্য্য বলেন, “পেট্রোপণ্যের দাম না কমালে এই আন্দোলন আরো তীব্র হবে।” বিজেপির প্রতি ক্ষোভ দেগে তিনি আরো বলেন,”বিজেপিকে ভারতছাড়া করে তবেই এই আন্দোলন শেষ হবে।”

বিজেপির নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রীয় সরকারকে উদ্দেশ্য করে জয়া দত্তের মন্তব্য,”আপনারা আমাদের বাঁচতে দিন। পেট্রল ডিজেলের দাম না কমালে আগামি দিনে দিল্লির রাজপথে আন্দোলন চলবে।”

মিছিলে পা মিলিয়ে শ্রেয়া পান্ডে বলেন,”ভোট মিটে গেছে, তাই দাম বাড়িয়েছে মোদীর সরকার। গ্যাসের দাম বাড়তে বাড়তে তো বাড়ির বাবা মায়েদের নাভিশ্বাস উঠেছে।” এদিন সাড়ে তিনটায় মিছিল শুরু হয়ে পাঁচটা নাগাদ মেয়ো রোডে গান্ধী মূর্তির পাদদেশে মিছিল শেষ হয়।