Date : 2022-05-29

কেউ কেউ ধরেই নিয়েছেন”আমি রাজ্য সরকারের বিরোধী, কিন্তু আসল সত্য তা নয়।আসলে আমি রাজ্য সরকারের অর্থ বাঁচাচ্ছি

ষষ্ঠী চট্টোপাধ্যায়, সাংবাদিক :- পঞ্চম শ্রেণী থেকে দশম শ্রেণীর পর্যন্ত একের পর এক শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতির মামলায় রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় থেকে শুরু করে তাঁর সময়ে তৈরি রাজ্যের স্কুল সার্ভিস কমিশনের উপদেষ্টা কমিটি সদস্যদের নিয়োগ দুর্নীতি তে কি কি ভূমিকা ছিল তা খতিয়ে দেখতে একের পর এক সিবিআই অনুসন্ধান থেকে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ জেরে রাজ্য সরকারের অস্বস্তি বাড়িয়ে তুলেছিলেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়।

বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের নির্দেশে প্রথম বিচারপতি হরিশ ট্যান্ডনের ডিভিশন বেঞ্চ হাইকোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি রঞ্জিত কুমার বাগের একটি কমিটি গঠন করে দিয়েছিলেন।সেই কমিটি দুর্নীতির অভিযোগ খতিয়ে দেখার পর রিপোর্ট জমা দেবেন।এস এল এস টি থেকে সহকারী শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতির অভিযোগে ফের সিবিআই অনুসন্ধান করে রিপোর্ট জমা দেওয়ার নির্দেশ।কিন্তু ডিভিশন বেঞ্চ একক বেঞ্চের নির্দেশ বার বার স্থগিতাদেশ দেওয়ায় সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি থেকে কলকাতা হাই কোর্টের প্রধান বিচারপতি কে চিঠি।

তৃনমূল আইনজীবী সেলের সদস্যদের সঙ্গে বার এসোসিয়েশনের সভাপতি র মতবিরোধ।কারণ বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের এজলাস বয়কটে সায় ছিল না বার এসোসিয়েশনের সভাপতি অরুনাভ ঘোষের।কিন্তু নিজেদের অবস্থানে অনড় তৃনমূল আইনজীবী সেল।

টানা ১৭দিন ধরে চলছে বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের এজলাস বয়কট।তা সত্ত্বেও নিয়ম মেনে প্রতিদিন অসংখ্য মানুষের মামলাও শুনছেন।কোন কোন মামলাকারি নিজেদের মামলা নিজেরাই লড়ছেন। যাঁর মধ্যে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি মামলা যা অবশ্যই মানবিকতার পরিচয় স্থাপন করেছেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের।

একটি শিক্ষক অবসারকালীন মামলা গ্রহণ করার আগে সংশ্লিষ্ট আইনজীবী র সাথে কথপোকথন চলাকালীন আন্দোলনরত আইনজীবী দের উদ্দেশ্যে বৃহস্পতিবার বেশ আক্ষেপের সুরেই তিনি বললেন কেউ কেউ ধরেই নিয়েছেন”আমি রাজ্য সরকারের বিরোধী, কিন্তু আসল সত্য তা নয়।আসলে আমি রাজ্য সরকারের অর্থ বাঁচাচ্ছি।বিচার ব্যবস্থার ওপর আজও মানুষের বিশ্বাস ও আস্থা রয়েছে, সেই বিশ্বাস টুকু পথেও করে আমি আমার কাজ টুকু করছি মাত্র।

যেহেতু আদালত বয়কট চলছে,।যে কারণে১৭ নম্বর এজলাসে মামলা করতে আসছেন না তা সত্ত্বেও বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের বিচার প্রক্রিয়া থেমে নেই। বলেন আমি বুধবার ও ১৭টি মামলা শুনেছি।রায় ও দিয়েছি।আমি আমার কাজ করে যাবো।