Date : 2022-10-03

ঘরছাড়া হতে হল পদ্মশ্রী সম্মানে সম্মানিত নৃত্যশিল্পী গুরু মায়াধর রাউতকে

মাম্পি রায়,নিউজ ডেস্ক:-৯১ বছর বয়সে ঘরছাড়া হতে হল পদ্মশ্রী সম্মানে সম্মানিত শিল্পীকে। সম্প্রতি একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে কেন্দ্র। সেই বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, ১৯৮০ সালে দিল্লির এশিয়ান গ্রামের সরকারি আবাসনে থাকা শিল্পীদের উচ্ছেদের কাজ শুরু হয়েছে। এর মধ্যে বেশ কয়েকজন শিল্পী পদ্ম সম্মান ও অ্যাকাডেমি পুরস্কারে সম্মানিত হয়েছিলেন। এমনই ৮ জন খ্যাতনামা শিল্পীকে নোটিস ধরিয়েছে মোদী সরকার। ২ মের মধ্য সরকারি আবাসন খালি করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে তাঁদের। সরকারের দাবি, বহু বছর আগে শিল্পী কোটায় সরকারি আবাসন পেয়েছিলেন তারা। কিন্তু ২০১৪ সালে সেই আবাসনে থাকার মেয়াদ ফুরিয়ে যায়। তার পরেও তাঁরা সরকারি আবাসন ছাড়েননি বলে অভিযোগ। আর সেজন্যই ঘর ছাড়ার জন্য নোটিস ধরানো হয় তাঁদের।
ওই শিল্পীদের মধ্যে একজন ওড়িশি নৃত্যশিল্পী গুরু মায়াধর রাউত। পদ্মশ্রী সম্মানে সম্মানিত ৯১ বছর বয়সী এই শিল্পীকে সরকারি আবাসন ছাড়ার নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্র। বুধবার সংসারের প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র নিয়ে বাড়ি ছাড়তে বাধ্য হন তিনি। ভাইরাল হয়েছে সেসমস্ত ছবি। আর তারপরই কেন্দ্রীয় সরকারের তীব্র সমালোচনায় সরব হয়েছেন নেটিজেনরা।


যেসব শিল্পীদের মাসিক আয় ২০ হাজার টাকার কম, এমন সর্বোচ্চ ৪০ জন শিল্পীর থাকার ব্যবস্থা করতে পারে কেন্দ্রীয় সংস্কৃতি মন্ত্রক। ১৯৮৭ সালে ২৮ জন শিল্পীকে দিল্লির ওই সরকারি আবাসনে থাকার ব্যবস্থা করেছিল তৎকালীন সরকার। কেটে গিয়েছে ৩৫ বছর। বর্তমানে মোদী সরকারের দাবি, ২০১৪ সালে সরকারি আবাসনে থাকার মেয়াদ ফুরিয়েছে ওই শিল্পীদের। তার পরেও বাড়ি ছাড়েননি তাঁরা। কেন্দ্রের বিজ্ঞপ্তির বিরুদ্ধে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন গুরু মায়াধর রাউত, শাস্ত্রীয় সংগীত শিল্পী রীতা গঙ্গোপাধ্যায়, মোহিনীনাট্যম শিল্পী ভারতী শিবাজি, কুচিপুরী শিল্পী গুরু ভি জয়রাম রাও, মায়াধার রাউতরা। কিন্তু তাতেও বিশেষ লাভ হয়নি। এপ্রিলের শেষে তাঁদের সরকারি আবাসন খালি করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রের তরফে। দোসরা মে-র মধ্যে ঘর ছাড়তে হবে তাঁদের। সেইমতো ঘর ফাঁকা করার প্রক্রিয়াও শুরু করে দিয়েছেন তাঁরা।
ওড়িশি নৃত্যশিল্পী গুরু মায়াধর রাউতের মেয়ে মৌমিতা রাউত জানান, দুপুরের খাবার খাচ্ছিলেন তিনি। তখনই ঘরের মধ্যে ঢুকে পড়েন সরকারি আধিকারিকরা। সোনাল মানসিং, রাধা রেড্ডি সহ বহু কিংবদন্তী শিল্পীকে নাচ শিখিয়েছেন গুরু মায়াধর রাউত। দিল্লিতেই ৫০ বছর নাচের তালিম দিয়েছেন তিনি। কিন্তু এত বছরে কোথাও এক ইঞ্চিও জমি নেই তাঁর। সরকারি আবাসন থেকে তাঁকে এভাবে উচ্ছেদ করাটা, খুবই দুঃখজনক। প্রত্যেক দেশবাসী সামান্যতম সম্মান পাওয়ায় যোগ্য।