Date : 2022-10-02

নিয়োগে দুর্নীতি, বার বার বিড়ম্বনা ফেলছে রাজ্য সরকারকে।সেই সরকারের কাছে ক্যানসারে আক্রান্তর জন্য চাকুরীর সুপারিশ করলেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়

ষষ্ঠী চট্টোপাধ্যায়, সাংবাদিক:-

মানবিক কলকাতা হাইকোর্ট! ক্যানসারে আক্রান্ত সোমা দাসের চাকুরীর জন্য রাজ্য সরকারের কাছে সুপারিশ করলেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের। রাজ্য সরকার যদি এই মুহূর্তে চাকুরি দিতে না পারেন তাহলে সোমা দাসের চিকিৎসা খরচ ১৫লক্ষ টাকা কিভাবে দেওয়া যায় সেই বিষয়েও বিচারপতি সুপারিশ করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের কাছে।

যে সরকারের আমলেই একের পর এক নিয়োগ দুর্নীতির বিরুদ্ধে সরব হয়ে কখন সিবিআই অনুসন্ধান আবার কখনও সিবিআইয়ের তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন।সেই সরকারের কাছেই আবেদন ক্যানসারের আক্রান্ত সোমার চাকুরীর জন্য।
মেধাতালিকায় নাম না থাকা সত্ত্বেও চাকুরীর পেয়েছেন অথচ মেধাতালিকায় নাম থাকা সোমা র কেন চাকুরীর হবে না।
রাজ্যের শিক্ষা দফতর, স্কুল সার্ভিস কমিশনের চেয়ারম্যান এবং আইনজীবী মারফত সরকারের কাছে আবেদন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের।

ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার পরেও চাকরির দাবিতে চারদিন ধরে গান্ধী মূর্তির পাদদেশে অবস্থানে বসে আছেন সোমা। যে কারণে বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় তাকে এজলাসে ডেকে অন্য দফতরে চাকরি দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছিলেন। কিন্তু সোমা বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের আবেদনে সাড়া দেয়নি।

ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার পরেও চারশো দিন ধরে গান্ধী মূর্তির পাদদেশে অবস্থানে বসে আছেন।দাবি একটাই যোগ্যতার মাপকাঠিতে দেওয়া হোক চাকুরী। চাকরির দাবিতে যে কারণে বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় তাকে এজলাসে ডেকে অন্য দফতরে চাকরি দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছিলেন। কিন্তু সোমা বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের আবেদনে সাড়া দেয়নি।
বীরভূমের নলহাটি বাসিন্দা সোমা দাস দীর্ঘ দুই বছর ধরে মারণ রোগ ব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্ত। পরিবারের একমাত্র সম্বল টুকু গেছে বর্তমানে চলছে তার চিকিৎসা খরচ।
সমান নিজের আলাদা করে মামলা করার মতন তারা আর্থিক সামর্থ্য নেই তাই ইচ্ছে থাকলেও উপায় ছিলনা বীরভূমের নলহাটির বাসিন্দা রে।
আইনজীবী ফিরদৌস শামীম বিনা পয়সায় কলকাতা হাইকোর্টে মামলা করেছেন।
আইনজীবী ফেরদৌস শামীম জানিয়েছেন তোমার মত একজন যে প্রতিদিন প্রতিনিয়ত লড়াই করে যাওয়া লড়াকু মানুষের জন্য বিনা পয়সায় মামলা করতে তার কোনো অসুবিধা নেই ।যে মানুষটি জীবনের সাথে প্রতিনিয়ত লড়াই করছে তার পাশে থাকতে পেরে নিজেকে গর্বিত মনে করছি বলেও জানিয়েছেন আইনজীবী।
নবম দশম শ্রেণির শিক্ষক নিয়োগের মেধা তালিকায় নাম ছিল সোমার।
যে হারে নিয়োগে দুর্নীতি হয়েছিল তার জেরেই সোমার মতো অসংখ্য ছেলেমেয়ে মেধা তালিকায় জায়গা করে নিলেও চাকরিজীবনের জায়গা করে নিতে পারেনি তাই সেই সময়ের হয়ে আইনি লড়াই লড়বেন এবার আইনজীবী ফেরদৌস শামীম।