Date : 2022-05-28

স্বাস্থ্যব্যবস্থায় নয়া দিশা – টেলিমেডিসিন পরিষেবায় দেশের মধ্যে দ্বিতীয় রাজ্য

সায়ন্তিকা ব্যানার্জি, সাংবাদিকঃরাজ্যের মুকুটে নতুন পালক। টেলিমেডিসিন সার্ভিসে অসামান্য অবদানের জন্য দেশের মধ্যে দ্বিতীয় স্থান অধিকার করল পশ্চিমবঙ্গ। ২২০০ টি সেন্টার নিয়ে শুরু হয়েছিল টেলিমেডিসিনের যাত্রা এই মুহুর্তে তা বেড়ে হয়েছে প্রায় ৪০০০-এর কাছাকাছি।

মূলত প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষও যাতে যথাযথ চিকিৎসা পান, তার জন্য চালু হয়েছিল এই টেলি-মেডিসিন পরিষেবা তাই এই স্বীকৃতি অনেক বড় প্রাপ্তি বলেই মনে করছেন চিকিৎসকরা। তারা জানাচ্ছেন এই সম্মান আগামী দিনে আরও বেশি মানুষের কাছে টেলি-মেডিসিন পরিষেবা পৌঁছে দিতে সাহায্য করবে।

২০২১ সালের ২ আগস্ট রাজ্যে সুস্বাস্থ্য কেন্দ্র থেকে চালু হয় টেলি-মেডিসিন পরিষেবা। ইতিমধ্যেই সমগ্র রাজ্য জুড়ে ৪০৪১ টি কেন্দ্রে চলছে এই পরিষেবা। পাশাপাশি, ৭০০ জনেরও বেশি চিকিৎসককে যুক্ত করা হয়েছে এই প্রকল্পে।

মূলত, করোনা শুরুর দিকে অধিকাংশ চিকিৎসকই ব্যক্তিগত চেম্বার বন্ধ করে দেওয়ায় চাপ বাড়ছিল হাসপাতালে। কিন্তু তাতে করে সমস্যা বাড়ছিল সাধারণ মানুষের সেই সময় করোনা ব্যতীত অন্য রোগের চিকিৎসা হচ্ছিল না অনেক জটিল রোগের রোগীরা মারাত্মক সমস্যায় পড়ছিলেন এর পাশাপাশি, সেই সময় বাড়ছিল সংক্রমণের হারও। এমতাবস্থায়, টেলি-মেডিসিনের মাধ্যমে ঘরে বসেই বহু রোগী সঠিক চিকিৎসা পেয়েছিলেন।