Date : 2022-05-27

হাওড়ায় তৃনমূল নেতা খুন, পুলিশ কমিশনারের রিপোর্ট তলব হাইকোর্টের

ষষ্ঠী চট্টোপাধ্যায়, সাংবাদিক:- ওয়াজিউল হক এলাকার একজন তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা হিসেবে পরিচয় হলে হাওড়ার সাঁকরাইলে তিনি সমাজ সেবক হিসেবেও তাঁর যথেষ্ট পরিচয় রয়েছে।গত ২২নভেম্বর ২০২১সালে নিজের এলাকায় খুন হন।রাজনৈতিক প্রতিহিংসা নাকি ব্যবসায়িক বিবাবাদের জেরে খুন তা এখনও পর্যন্ত স্পষ্ট নয়।

সাঁকরাইল থানায় অভিযোগ করার পর পুলিশ ঘটনাস্থলে আগ্নেও অস্ত্র উদ্ধার করে।এই ঘটনার পর একজনকে গ্রেফতার করেছিল।যদিও পরে কলকাতা হাইকোর্ট থেকে জামিন মঞ্জুর হয়ে যায়। মৃতের পরিবারের পক্ষ থেকে বার বার পুলিশের কাছে অভিযোগ জানানো সত্বেও পুলিশ উল্টে মামলাকারিদের জোর করে ১৬১ধারায় জবানবন্দি নিতে চাপ সৃষ্টি করছে বলে মঙ্গলবার তাঁর আইনজীবী অনুজিত মুখোপাধ্যায়ের।যদিও সরকার পক্ষের আইনজীবী আদালতে দাবি করেছেন এই খুনের ঘটনায় ৩০২,১২০বি, এবং আগ্নেয়াস্ত্র ধারায় মামলা রুজু করে তদন্ত করছেন।

তৃনমূল নেতা ওয়াজিউল হক খুনের ঘটনায় হাওড়া চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের ঘরে চার্জশিট দাখিল করেছে পুলিশ।সেখানে খুন, ষড়যন্ত্র ধারায় চার্জশিট দাখিল করলেও আগ্নেয়াস্ত্র ধারা দেওয়া হয়নি।ছেলের অভিযোগ তাঁদের ভয় দেখানো হচ্ছে পুলিশের তরফে।যা নিয়ে চিঠি দেয় আবেদনকারী ইন্সপেক্টর জেনারেল, পুলিশ কমিশনার, এবং রাজ্য পুলিশের ডিজি কে চিঠি পাঠিয়েছিলেন।

সরকারি পক্ষের আইনজীবীজানান প্রধান অভিযুক্ত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছেএবং মৃতের পরিবারের ১৬৪ গোপন জবানবন্দি।মামলার কেস ডায়েরি জমা দিয়েছেন। আইনজীবী র অভিযোগ আগ্নেয়াস্ত্র ধারায় মামলা রুজু করলেও চার্জশিটে তাঁর উল্লেখ নেই। অথচ পুলিশ জানাচ্ছেন ফরেন্সিক রিপোর্ট আসার পর তারা অতিরিক্ত চার্জশিটে উল্লেখ করবেন। পুলিশি নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগে গত মার্চে শেষে কলকাতা হাই কোর্টের বিচারপতি রাজা শেখর মান্থার এজলাসে মামলা দায়ের করেন। মামলার পরবর্তী শুনানি আগামী ৫ই মে।