Date : 2022-05-28

একবার বাড়ানো যাবে বেডভাড়া – ৪ নয়া নির্দেশিকা রাজ্য স্বাস্থ্য কমিশনের

সায়ন্তিকা ব্যানার্জি, সাংবাদিকঃ রাজ্য স্বাস্থ্য কমিশনের পক্ষ থেকে জারি হল নতুন চারটি অ্যাডভাইজরি। যেখানে বাতিল হল এক পুরনো নিয়ম। এবার থেকে বেসরকারি হাসপাতাল চাইলে বাড়াতে পারে বেড ভাড়া। তবে তা বছরে একবার এবং তা ১০ শতাংশের বেশি নয়। উল্লেখ্য যে ২০২০ সালের মার্চ মাসে ত নির্দেশিকা জারি করা হয় যে কোভিড আবহে বেড ভাড়া কোনওভাবে বাড়ানো যাবে না। সেই নির্দেশিকা প্রত্যাহার করে নতুন নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে।

করোনা আবহে রোগীর ঢল উপচে পড়েছিল বেসরকারি হাসপাতালগুলিতে। স্বাস্থ্য কমিশন সে সময় নিয়ম করেছিল, ১ মার্চ ২০২০ সালের যা বেড চার্জ প্রতিটি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে সেটাই বহাল রাখতে হবে। করোনার জন্য যেন বেড চার্জ না বাড়ানো হয়। এখন যেহেতু করোনা বিধিনিষেধ উঠে গিয়েছে তাই সে সুপারিশ তুলে নেওয়া হল। বেড ভাড়া চাইলে বাড়াতে পারবে বেসরকারি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তবে বছরে একবারের বেশি তা বাড়ানো যাবে না। এবং ভাড়া ১০ শতাংশের বেশি কখনওই নয়।

এছাড়াও বলা হয়েছে কেউ হাসপাতালে ভর্তি হলে পানীয় জল তার প্রাপ্য। তার জন্য আলাদা চার্জ করা যাবে না। তবে যদি রোগী বলেন, তাঁর প্যাকেজ ড্রিঙ্কিং ওয়াটার বা মিনারেল ওয়াটার চাই, তবে সেক্ষেত্রে রোগীর থেকে চার্জ নেওয়া যেতে পারে।

আইসিইউতে থাকলেও বাড়তি চার্জ নেওয়া যাবে না। স্যালাইন সহ অন্য ওষুধ দিতে চ্যানেল করতে হলে বা বিভিন্ন প্রসেসিং করতে হলে, এক্ষেত্রেও বাড়তি চার্জ করা যাবে না। মানে রুটিন প্রসিডিউর অর্থাৎ কোনও সেন্ট্রাল আর্টারিয়র লাইন তৈরি হচ্ছে বা এই ধরনের যে প্রক্রিয়াগুলি রয়েছে চিকিৎসা সংক্রান্ত, তার জন্য কোনও বাড়তি চার্জ নেওয়া যাবে না রোগী বা তার পরিজনদের থেকে।

উল্লেখ্য স্বাস্থ্য কমিশনের এই যে নয়া অ্যাডভাইজরি জারি করা হয়েছে চিকিৎসার খরচ বেঁধে দেওয়ার জন্য, তা যথেষ্টই তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছেন চিকিৎসক মহলের একাংশ।