Date : 2022-05-29

আবার প্রথম পশ্চিমবঙ্গ। ধারেকাছে নেই গুজরাট বা উত্তরপ্রদেশ।

সঞ্জু সুর, রিপোর্টার : বাড়ি বাড়ি নলবাহিত পানীয় জল পৌঁছানোয় ফের নজির রাজ্যের। ২০২১/২২ অর্থবর্ষে সারা দেশের নিরিখে প্রথম স্থানে পশ্চিমবঙ্গ। প্রথম চারে নেই প্রধানমন্ত্রী বা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর রাজ্য গুজরাট। দ্বিতীয় স্থানে উড়িষ্যা, তৃতীয় বিহার ও চতুর্থ স্থানে কর্ণাটক।

২০১৯ সালের ১৫ আগষ্ট “জল জীবন মিশন” প্রকল্পের কথা ঘোষণা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। মূলতঃ গ্রামীণ ভারতের প্রতিটা বাড়িতে পানীয় জল পৌঁছে দেওয়াই এই প্রকল্পের মূল লক্ষ্য। আমাদের রাজ্যেও প্রায় একই ধরনের একটি প্রকল্প রয়েছে। যে প্রকল্পের নাম “জলস্বপ্ন”। মুখ্যমন্ত্রীর স্বপ্নের এই “জলস্বপ্ন’ প্রকল্পকে হাতিয়ার করে গ্রাম বাংলায় এক আমূল পরিবর্তনের পথে হাঁটতে চাইছে জনস্বাস্থ্য কারিগরি দফতর। সেই লক্ষ্যে তারা অনেকটাই এগিয়েছে। অন্ততঃ সাম্প্রতিক এক সমীক্ষা রিপোর্ট তেমনই ইঙ্গিত দিচ্ছে। ২০২১/২২ অর্থবর্ষে সারাদেশের নিরিখে ২৩,৩৭,১৯৩ টি বাড়িতে নতুন করে নলবাহিত পানীয় জল পৌঁছে দিয়ে প্রথম স্থানে পশ্চিমবঙ্গ। দ্বিতীয় স্থানে উড়িষ্যা। এই সময়কালে ওই রাজ্য ১৭,৪৭,৬২২ টি বাড়িতে পানীয় জল পৌঁছে দিতে পেরেছে। ১৭,৪৯,৮৫৯ টি বাড়িতে পানীয় জল পৌঁছে দিয়ে নীতীশ কুমারের বিহার তৃতীয় স্থানে। তালিকার চতুর্থ স্থানে আছে বিজেপি শাসিত রাজ্য কর্ণাটক। ১৭,৩৯,২১৫ টি বাড়িতে নলবাহিত পানীয় জল পৌঁছে দিতে পেরেছে তারা। তালিকায় অনেক পিছনে প্রধানমন্ত্রীর রাজ্য গুজরাট বা সদ্য দ্বিতীয় বার ক্ষমতায় ফেরা যোগীর রাজ্য উত্তরপ্রদেশ।
এদিকে এই বছর শুধু মার্চ মাসের নিরিখে অন্ধ্রপ্রদেশ ৪,০৭,৫৯৮ টি বাড়িতে নলবাহিত পানীয় জল পৌঁছে দিয়ে প্রথম স্থানে রয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে পশ্চিমবঙ্গ। ২,৬৩,২২৯ টি বাড়িতে শুধু এই মাসেই নলবাহিত পানীয় জল তুলছে দেওয়া সম্ভব হয়েছে। তৃতীয় ও চতুর্থ স্থানে রয়েছে যথাক্রমে অসম ও উড়িষ্যা।

আমাদের রাজ্যের ক্ষেত্রে যদি মার্চ মাসের জেলাওয়ারি এই পরিসংখ্যান দেখা যায় তাহলে দেখা যাবে ৪৬,৩৮৭ টি বাড়িতে পানীয় জল পৌঁছে নদিয়া প্রথম স্থানে রয়েছে। দ্বিতীয়, তৃতীয় ও চতুর্থ রয়েছে যথাক্রমে স্থানে মুর্শিদাবাদ, উত্তর ২৪ পরগনা ও বাঁকুড়া জেলা। এই তিন জেলা যথাক্রমে ৩৯,২৩৭ টি, ২৭,৫২৭ টি এবং ২২,৮০৯ টি বাড়িতে নলবাহিত পানীয় জল পৌঁছে দিয়েছে। রাজ্যের এই সাফল্যের কারণ হিসেবে জনস্বাস্থ্য কারিগরি দপ্তরের মন্ত্রী পুলক রায় জানান, “মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজে এই স্বপ্নের প্রকল্পের তদারকি করেন। তাঁর নির্দেশেই দফতরের সব কর্মী ও আধিকারিকরা কাজ করেছে এবং করছে।” পুলক রায়ের মতে, ২০২৪ সালের মধ্যে প্রত্যেকটি বাড়িতে পানীয় জল পৌঁছে দেওয়ার যে লক্ষ্যমাত্রা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ধার্য্য করে দিয়েছেন তাঁর দফতর সেই লক্ষ্য পূরণ করবেন‌ই।