Date : 2022-10-01

তিন মাস বেতন নেই, সমস্যায় কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের ঠিকাকর্মীরা

নাজিয়া রহমান, রিপোর্টার করোনার সংক্রমণ নিম্নমুখী হতেই ছন্দে ফিরতে শুরু করেছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলি। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলোর পরই খুলতে শুরু করেছে হস্টেলও। হস্টেলে আবাসিক পড়ুয়াদের জন্য যারা রান্না করেন তারা বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই ঠিকাকর্মী। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে অফলাইনে পঠনপাঠন শুরু হতে খুলেছে হস্টেলগুলিও। কিন্তু যারা হস্টেলের আবাসিকদের জন্য রান্না করেন তারা তিন মাস ধরে বেতন পান না। কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করেও লাভ হয়নি বলেই দাবি তাদের। তাই এবার বিক্ষোভের পথে হাঁটতে চলেছেন কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন ছাত্রাবাসের রাঁধুনিরা। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন ছাত্রাবাসে এই সমস্ত রাঁধুনিরা রান্নার কাজ করেন। রাজ্যের বিভিন্ন জেলা থেকে এসে তারা রান্নার কাজে যুক্ত হয়েছেন। আর এতে উপার্জিত অর্থেই চলে এদের সংসার। কিন্তু চলতি বছরের জানুয়ারি মাস থেকে বেতন পান না বলে অভিযোগ এই সমস্ত ঠিকা কর্মীদের। তাই বকেয়া বেতনের দাবিতে আন্দোলনে সামিল তারা।

সহ্যের সীমা অতিক্রান্ত হলেও নিজেরা না খেয়ে রান্না করছেন, তবু এক্ষুনি স্ট্রাইকে যাচ্ছেন না কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের হস্টেলগুলিতে কর্মরত ঠিকাকর্মীরা। ইতিমধ্যেই বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রারের সঙ্গে একপ্রস্থ আলোচনায় বসেছেন তারা। খুব দ্রুত ঠিকাকর্মীদের দাবি পুরোন করা হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন কর্তৃপক্ষ। আন্দোলনকারীদের হুঁশিয়ারি দ্রুত সমস্যার সমাধান না হলে তারা লাগাতার আন্দোলনের পথ বেছে নেবে।