Date : 2022-06-30

আলুর দাম বাড়ায়, অফিস পাড়ায় খাবারে দোকানে আলুর সাইজে কোপ

আলুর দাম বাড়ায়, অফিস পাড়ায় খাবারে দোকানে আলুর সাইজে কোপ

শাহিনা ইয়াসমিন, সাংবাদিক: পেট্রল-ডিজেল বা রান্নার গ্যাস, দাম একবার বাড়লে আর কমে না। সেই পথেই আলুর দামও কমছে না। আলুর দাম বাড়ায় গেরস্থের আলু কেনার পরিমাণ কিছুটা কমেছে। যারা আগে বাজারে এলে কেজি দুয়েক আলু ঝোলায় ভরতেন তারাও এখন সমঝে আলু কিনছেন। আলুর দামের প্রভাব পড়েছে অফিসপাড়ার খাবারের দোকানেও। সেই ছবি ধরা পড়ল আরপ্লাসের ক্যামেরায়।


আলুতে হাত দিলেই লাগছে ছ্যাঁকা। সেটা জ্যোতি আলু হোক বা চন্দ্রমুখী আলু। বাজারে জ্যোতি আলুর দাম ৩০ টাকা কেজি ও চন্দ্রমুখী আলুর দাম ৪০ টাকা কেজি। তবে চাহিদা কমলেও দাম কমছে না। দামের ছ্যাঁকাতেই হাত পুড়ছে রান্নাঘরের হেঁসেল থেকে ফুটপাতে থাকা খাবারের দোকানেও। রাইটার্স বিল্ডিং এর কাছে ফুটপাত ঘেসা বহু খাবারের দোকান। কী নেই সেখানে। চাউমিন, বিরিয়ানি, লুচি, আলুর দম, আলুর পরোটা, আলুর তরকারি সব পাওয়া যায় এই অফিস পাড়ায়। অফিস পাড়া হওয়ায় অফিস কর্মীদের পাশাপাশি পথচলতি মানুষও খেতে আসেন। তবে আলুর দাম যেদিন থেকে বেড়েছে সেদিন থেকে বিরিয়ানিতে আলুর বড় সাইজে কোপ পড়েছে। আলুর সাইজ ছোটো করেছেন দোকান মালিকরা। তবে এখানে নয় আলুর তরকারির পরিমাণও কম দেওয়া হচ্ছে পাতে। আর আলুর পরোটাতে আলুর পরিমাণ কমেছে।


কেউ ২২ বছর ধরে কেউ ৩০ বছর ধরে দোকানদারি করছেন এখানে। আলুর দাম আগে এতো বাড়েনি বলে জানান হারু মান্না নামে এক খাবার দোকান মালিক। সবেতেই সমঝোতা করে চলতে হচ্ছে বলে জানান তিনি। খাবারের গুণগত মানটাও দেখতে হচ্ছে তাদের। তবে যেসব খাদ্যরসিকরা বহু দিন ধরে এখানে খেয়ে আসছেন তাদের কোনও অভিযোগ নেই। কারণ তারা জানেন সবকিছুর দাম যেভাবে বেড়েছে তাতে হেঁসেল ঠেলতে সকলেরই নাভিশ্বাস উঠছে। আলুর দাম বাড়লেও খাবারের দাম বাড়াননি দোকান মালিকরা। আগের দামেই খাবার বিক্রি করছেন তারা। কারণ দাম বাড়ালে খাদ্য প্রেমীদের ভাটা পড়ে যাবে। সস্তায় খাবার খেতেই ভিড় জমে এই অফিস পাড়া চত্বরে।