Date : 2022-10-06

কলকাতার মাত্র দুটি রুটে চলছে ট্রাম, তাহলে পরিবেশবান্ধব যান কি বন্ধের মুখে?

শাহিনা ইয়াসমিন, সাংবাদিক: টালিগঞ্জ থেকে বালিগঞ্জ এবং ধর্মতলা থেকে গড়িয়াহাট, শহরে মাত্র এই দুই রুটেই চলছে ট্রাম । বাকি সব রুট বন্ধ। কোথাও মেট্রোর কাজের জন্য, আবার কোথাও যানজট এড়াতে। ওই দুই রুটেও সময়ে চলছে না ট্রাম। সবমিলিয়ে প্রায় দশটি করে ট্রাম চলছে রুট দুটিতে। বিকেলের পর কন্ডাক্টর কম থাকায় ট্রাম চালাতে সমস্যা হচ্ছে। ফলে শহরের ঐতিহ্যবাহী পরিবেশবান্ধব এই যানের স্থান হয়েছে ডিপোয়। যেগুলির কোনওটির মধ্যে জিনিসপত্র রাখা হচ্ছে। কোনওটা হয়েছে নিরাপত্তারক্ষীদের ঘুমোনোর জায়গা।

মাঝেরহাট সেতু ভেঙে পড়ার পর যানজটের কারণ দেখিয়ে খিদিরপুর–টালিগঞ্জ রুটও বন্ধ করে দেওয়া হয়। বিবাদী বাগে ইস্ট–ওয়েস্ট মেট্রোর কাজ শুরু হওয়ায় উত্তর কলকাতার বেশির ভাগ ট্রাম রুটই বন্ধ। টালা সেতু বন্ধ হওয়ার পরে বেলগাছিয়া সেতুর চাপ কমাতে ট্রাম বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয়। কিন্তু বছর কয়েক আগেও কলকাতায় ২৫টি রুটে ট্রাম চলাচল করত।

শহরে গতি আনতে অনেকদিন ধরেই ট্রাম বন্ধ করার কথা বলে আসছে ট্রাফিক পুলিশ। শ্যামবাজার পাঁচমাথা ও শিয়ালদহ ফ্লাইওভার–সহ কলকাতার ২৪টি এলাকা থেকে ট্রামকে বিদায় দিতে চেয়েছিল তারা। ধর্মতলা থেকে এসএন ব্যানার্জি রোড দিয়ে ট্রাম চলাচলও চিরদিনের জন্য বন্ধ রাখাতে চায় পুলিশ।

পরিবহণ দফতর সূত্রে খবর, ট্রাম চালিয়ে কোনও আয় নেই সরকারের, বরং লোকসান। সেইসঙ্গে যানজট হয়। তাই ট্রামের জন্য নতুন করে কোনও কর্মী নিয়োগ করা হয়নি বহু বছর। চালক, কন্ডাক্টরও কম। তাই পরিষেবা দিতে সমস্যা হয়। একটি ট্রাম তিন–চারটে ট্রিপে চলে। অথচ তা থেকে আয় মেরেকেটে হাজার দু’‌য়েক টাকা। কোনও কোনও দিন তাও হয় না। পরিবহণ দফতর থেকে জানা যাচ্ছে মেট্রোর কাজের জন্য যে রুটগুলি বন্ধ রয়েছে সেগুলি ফের চালু করা হবে।