Date : 2022-05-29

গরমের দহনে বৃষ্টির প্রলেপ, এক ধাক্কায় ৫-৭ ডিগ্রি করে কমল তাপমাত্রা

মাম্পি রায়, নিউজ ডেস্ক : একদিনের কালবৈশাখী। তার জেরে এক ধাক্কায় অনেকটা কমল তাপমাত্রা। তীব্র দহনে জেরবার হয়ে পড়েছিল কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গ। বৈশাখের গরমের জ্বালায় স্বস্তি হয়ে নেমে আসে শনিবারের বৃষ্টি। তারপর বিভিন্ন জেলায় 5 থেকে 7 ডিগ্রি কমল তাপমাত্রা।
তীব্র দাবদাহে কার্যত পুড়ছিল কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলি।বৃষ্টির পূর্বাভাসও ক্রমেই পিছিয়ে যাচ্ছিল। অবশেষে শনিবার সন্ধেয় শুরু হয় কালবৈশাখী। তাতেই একধাক্কায় অনেকটা কমে গেল তাপমাত্রা এবং অস্বস্তি। আগামী কয়েকদিনে ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা বজায় থাকবে বলে জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। সোমবার কলকাতায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা 34.7ডিগ্রি সেলসিয়াস। অন্যান্য জেলাতেও অনেকটাই কমেছে তাপমাত্রা। প্রায় 5 থেকে 7 ডিগ্রি করে কমেছে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা। একঝলকে দেখে নেওয়া যাক বৃষ্টির ফলে কোথায় কতটা নামল তাপমাত্রা ?

কোথায় কত কমল তাপমাত্রা ?
স্থান 26 এপ্রিল 2 মে
কলকাতা 39.5 ডিগ্রি 34.7 ডিগ্রি
আসানসোল 42.7 ডিগ্রি 35 ডিগ্রি
ব্যারাকপুর 41.2 ডিগ্রি 34.8 ডিগ্রি
দমদম 40.9 ডিগ্রি 34.7 ডিগ্রি
বর্ধমান 42 ডিগ্রি 37 ডিগ্রি
মালদা 40.5 ডিগ্রি 33 ডিগ্রি
পূর্ব মেদিনীপুর 41.5 ডিগ্রি 34 ডিগ্রি
পশ্চিম মেদিনীপুর 34 ডিগ্রি 36 ডিগ্রি
পুরুলিয়া 42.3 ডিগ্রি 36. 3 ডিগ্রি
মালদা 40.5 ডিগ্রি 33 ডিগ্রি

তীব্র গরমে স্কুলে যেতে বেশ খানিকটা বেগ পেতে হচ্ছিল পড়ুয়াদের। তাদের কথা মাথায় রেখে গরমের ছুটি এগিয়ে আনার কথা ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে ছুটি ঘোষণার পরই কমেছে তাপমাত্রা। কোভিডের জেরে এমনিতেই পড়ুয়াদের পড়াশোনার অনেক ক্ষতি হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে টানা 45দিনের গরমের ছুটি বাতিল করে অন্তত কয়েকদিনের জন্য হলেও স্কুল খোলা হোক। এমন দাবি তুলতে শুরু করেছেন শিক্ষক মহলের একাংশ।