Date : 2022-06-30

“পরেশ তো ফেঁসে গেছে” নতুন প্যারোডি গানে তোলপাড় স্যোশাল মিডিয়ায়। গীতিকার CPIM সমর্থক রাহুল পাল

ষষ্ঠী চট্টোপাধ্যায়, সাংবাদিক ঃ একের পর এক নিয়োগ দুর্নীতির মামলায় জড়িয়েছে রাজ্যের প্রাক্তন এবং বর্তমান মন্ত্রীদের নাম।এবার তাঁদের নিয়েই গান বেঁধেছে গীতিকার রাহুল পাল।

রাজ্যের শিরোনামে রয়েছে এসএসসি শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতিতে জড়িত মন্ত্রীদের নাম। রাজ্যের প্রাক্তন, বর্তমান শিক্ষামন্ত্রী নাম দুর্নীতিতে নাম জড়িয়ে যাওয়ায় অস্বস্তি বাড়িছে শাসক শিবিরে।এই সুযোগে ঘোলা জলে মাছ ধরতে নেমে পড়েছেন ডান,বাম সকলেই।

কোন রাজনৈতিক দলের গেরিলা আন্দোলনের জেরে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেয় আদালত । মুষ্টিমেয় কিছু ছাত্র ছাত্রী তাদের নীরবে আন্দোলনের মধ্যে দিয়েই অস্বস্তিতে ফেলে দিয়েছে শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা মন্ত্রীদের । পিছিয়ে নেই ছাত্র সংগঠনগুলো। রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষা মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং বর্তমানে শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পরেশ চন্দ্র অধিকারী বিরুদ্ধে যেভাবে দুর্নীতির অভিযোগ এসেছে তা নিয়ে সরব হলো বামপন্থী ছাত্র সংগঠন ।

গ্রুপ সি গ্রুপ ডি নবম-দশম শ্রেণি এবং একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণীর নিয়োগে দুর্নীতি শুধু নয় টাকার বিনিময় চাকরি দেওয়া হচ্ছে সেই সমস্ত শিক্ষকদের যাদের যোগ্যতা ছিল না। রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষা মন্ত্রী তৃণমূল কংগ্রেসের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পরেশ চন্দ্র অধিকারী দুর্নীতিতে নাম জড়িয়ে যাওয়ায় তাদের নিয়ে আসতো একটি গান লিখে ফেললেন গীতিকার রাহুল পাল ।

” বসন্ত এসে গেছে” এই জনপ্রিয় বাংলা গানের প্যারোডি করে সিপিআইএম সমর্থক গীতিকার রাহুল পাল গান বেঁধেছেন ‘পরেশ তো ফেঁসে গেছে’। রাহুল পালের সঙ্গে গানে গাইলেন নীলাজ নিয়োগী। তবে সেই একই ভঙ্গিতে বিতর্কিত এবং চর্চিত বিষয় রাজ্যের দুই মন্ত্রী কে কটাক্ষের সুরে গান বাঁধলেন তারা।

গীতিকার রাহুল পালদের মন্তব্য ” চোরের মায়ের বড় গলা যদি হয় আমাদেরও গান থাকবে। দুর্নীতির অভিযুক্তরা যদি সত্যতার প্রতীক লেবেল লাগিয়ে ঘোরে। তাহলে আমরাও প্যারোডি বানাবো। রাজ্যের শুধুমাত্র অযোগ্যরা চাকরি পাচ্ছে তা নয়। অযোগ্যরা গুরুত্বপূর্ন পদে বসে রয়েছে বলে এই প্যারোডিতে সেই বিষয় তুলা হয়েছে। আর এই নতুন গানে এই দাবিও করা হয়েছে যে দিন এই পদ থেকে অযোগ্যরা সরে দাঁড়াবে । সেই দিনই অযোগ্যরা রাস্তায় বসবে আর যোগ্যরা চাকরি পাবে। তখন ” আহা কি আনন্দ আকাশে বাতাসে” এই গান গাইবো বলে কটাক্ষ গায়কদের। আর যতদিন এই গড়বড় থাকবে ততদিন এই প্যারোডি চলতে থাকবে বলে অঙ্গীকার সিপিআইএম সমর্থিত গায়কদের।