Date : 2022-05-26

পুষ্টিগুণে ভরা গরমের তেতো সবজি

সঞ্জনা লাহিড়ী, সাংবাদিক-গরমের সবজির মধ্যে অন্যতম করলা। স্বাদে তেতো হলেও পুষ্টিগুণে ঠাসা এই সবজি। অনেকেই করলা খেতে অনীহা প্রকাশ করেন। এই সবজিতে কি কি রয়েছে তা জানলে একটু হলেও করলা খেতে ইচ্ছে হবে।
গরমের সবজি করলায় রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ, বি ও সি। এছাড়াও সবজিটি বিটা-ক্যারোটিন, আয়রন, জিঙ্ক, পটাশিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ ও ম্যাগনেসিয়ামে ভরপুর। এবার জেনে নেওয়া যাক স্বাস্থ্যকারী উপকারিতা।
১. ওজন কমায়: করলা একটি লো ক্যালোরি সম্পন্ন খাবার। এছাড়া লো ফ্যাটের খাবারও করলা। ওজন কমানোয় যাদুকরী ভূমিকা পালন করে করলা।
২. হজমে সহায়তা করে: করলা ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার। এতে করে খাবার হজম ভাল হয় এবং পেটও পরিষ্কার থাকে। সেই সাথে অ্যাসিডিটির সমস্যা কমায়।
৩. ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য: করলা ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য যাদুর মত কাজ করে। করলার জুস সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতে অনেক উপকারী।
৪. রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়: করলাতে যে ভিটামিন সি রয়েছে তা শরীর সুস্থ রাখতে অর্থাৎ রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে।
৫. ত্বকের যত্নে: করলায় থাকা ভিটামিন ও মিনারেল ত্বক ভাল রাখে। এছাড়া ব্রণ সারাতে ম্যাজিকের মত কাজ করে করলা।
৬. শ্বাসরোগ দূর করে: করলার রস মধুর সাথে মিশিয়ে খেলে ফুসফুস ভাল থাকে। এই রস হাঁপানি, ব্রঙ্কাইটিস ও গলার প্রদাহে উপকার করে।
৭. ক্যানসার কোষ নিয়ন্ত্রন: করলার রস ক্যানসার কোষ ধ্বংস করে এবং নতুন কোষ তৈরি হতে দেয় না।
৮. চোখের সমস্যা: এই সবজিতে আছে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন এ যা দৃষ্টিশক্তি ভাল রাখতে সাহায্য করে।
৯. বাতের ব্যাথা কমায়: করলার রস বাতের ব্যথা কমাতে সাহায্য করে। এর রস রক্ত পরিষ্কার করে ও রক্তের সঞ্চালন বাড়িয়ে বাতের ব্যথা কমিয়ে দেয়।

এছাড়া করলার পাতার রস খেলে জ্বর সেরে যায়। শরীর থেকে কৃমি দূর করতেও করলা কাজ করে।