Date : 2022-10-02

মদন মিত্রর উদ্যোগে অভিনব ‘রথযাত্রা’ উত্সব, পুরীর রথের আদলে তৈরি হচ্ছে রথ।

শাহিনা ইয়াসমিন, সাংবাদিক: রথযাত্রার বাকি আর মাত্র কয়েকটা সপ্তাহ। দাদা বলভদ্র ও বোন সুভদ্রাকে নিয়ে মাসির বাড়ি যাবেন প্রভু জগন্নাথদেব৤ দেশে সবচেয়ে বড় উত্সবটি পালিত হয় শ্রীক্ষেত্র পুরীতে। বিভিন্ন রাজ্য তো বটেই এমনটি বিদেশ থেকেও বহু ভক্ত আসেন এই রথের রসিতে টান দিতে। কিন্তু, যারা যেতে পারেন না….। তাদের জন্যই এবার কামারহাটিতে তৈরি হচ্ছে রথ। পুরীর জগন্নাথ দেবের রথের আদলে তৈরি এই রথের চাকা ঘুরবে পয়লা জুলাই।


পয়লা জুলাই রথযাত্রা। তার আগেই কলকাতায় রথ তৈরির তোড়জোড় শুরু হয়ে গেছে। কামারহাটির রথতলায় প্রতিবছরই রথযাত্রা উত্সব পালিত হয়। তবে এবছর একটু অন্যরকমভাবে পালন করবেন তারা। কামারহাটির বিধায়ক মদন মিত্র এবং কাউন্সিলর সোমনাথ রায় চৌধুরির উদ্যোগে এবার পুরীর জগন্নাথ দেবের রথের আদলে রথ তৈরি হচ্ছে। কামারহাটি পৌরসভার উল্টোদিকে রাস্তার উপরই রথ তৈরির কাজ চলছে পুরোদমে। প্রায় এক মাস আগে থেকে শুরু হয়েছে কাজ । উড়িষ্যা থেকে কারিগর আনা হয়েছে রথ তৈরির জন্য। জগন্নাথ, বলরাম, সুভদ্রার জন্য ৩০ ফুটের তিনটি রথ তৈরি হচ্ছে। পুরীর রীতি নীতি মেনেই তৈরি হচ্ছে এই রথ। রথের জন্য উড়িষ্যার রৌরকেল্লা থেকে এসেছে তিনধরণের কাঠ। সেই কাঠ দিয়ে তৈরি হচ্ছে রথ। রথের চাকা তৈরি।

কাঠের উপর চলছে বিভিন্ন নকশা। এই নকশা করা কাঠ দিয়ে সাজানো হবে রথ। এরই পাশাপাশি রথযাত্রার দিন ভক্তদের জন্য থাকছে মহাপ্রসাদের ব্যবস্থা। পুরীর রথযাত্রার আনন্দ যাঁরা উপভোগ করতে পারেন না , তাদের জন্য এবার কলকাতাতেই পুরীর রথ। রথযাত্রার দিন এক বিরাট শোভাযাত্রারও আয়োজন করা হচ্ছে। যে শোভাযাত্রায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন সক্কলে।