Date : 2022-10-02

দুয়ারে অশনি। পিছিয়ে গেল মুখ্যমন্ত্রীর জেলা সফর।

সঞ্জু সুর, সাংবাদিক : ১০ থেকে ১২ মে তিনদিনের জঙ্গলমহল সফর করার কথা ছিলো মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। কিন্তু ঘূর্ণিঝড়ের ভ্রুকুটিতে সেই জেলা সফর এক সপ্তাহের জন্য পিছিয়ে দিলেন তিনি। ঝড়ের সরাসরি প্রভাব রাজ্যে না পড়লেও গত কয়েক বছরের অভিজ্ঞতা থেকে এবার প্রস্তুতিতে কোনো ছাড় রাখতে চাইছে না রাজ্য। মুখ্যমন্ত্রী নিজেও নবান্ন থেকে সবকিছু তদারকি করবেন। তাই এক সপ্তাহ পিছিয়ে গেল তাঁর জেলা সফর।

৫ তারিখ তৃণমূল কংগ্রেসের নতুন অস্থায়ী ভবনে প্রথম রাজ্য কমিটির বৈঠকের পর সাংবাদিক সম্মেলনে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছিলেন তিনি আবার জেলা সফর শুরু করবেন। জেলা সফরে প্রশাসনিক পর্যালোচনা বৈঠকের পাশাপাশি তিনি দলীয় স্তরেও বৈঠক করবেন। সেদিন‌ই তিনি জানান তাঁর এই জেলা সফর শুরু হবে জঙ্গলমহলের দুটো জেলা দিয়ে। মুখ্যমন্ত্রী যে সফরসূচি জানিয়েছিলেন তা অনুযায়ী ১০ থেকে ১২ তারিখ তাঁর থাকার কথা ছিলো পশ্চিম মেদিনীপুর ও ঝাড়গ্রাম জেলায়। কিন্তু তাঁর পরপরই ঘূর্ণিঝড় অশনি নিয়ে সতর্কবার্তা জানায় মৌসম ভবন। সেই সতর্কবার্তা অনুযায়ী মুখ্যমন্ত্রীর সফরকালে‌ই গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের জেলাগুলোতে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হতে পারে বলে জানানো হয়। এই দূর্যোগের সময় তাই জেলা সফর না করে নিজে নবান্নে থেকে সবকিছু তদারকি করার সিদ্ধান্ত নেন মুখ্যমন্ত্রী। ফলে পিছিয়ে দেওয়া হয় তাঁর জঙ্গলমহল সফর। নতুন সফরসূচি অনুযায়ী ১৭ তারিখ পশ্চিম মেদিনীপুরে প্রশাসনিক বৈঠক করবেন মুখ্যমন্ত্রী। ১৮ তারিখ ওই জেলার বুথ স্তরের তৃণমূল প্রতিনিধিদের নিয়ে বৈঠক করবেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তারপর তিনি চলে যাবেন ঝাড়গ্রাম জেলায়। সেখানে ওই দিন বিকালে প্রশাসনিক পর্যালোচনা বৈঠক করবেন তিনি। এরপর ১৯ মে ঝাড়গ্রাম জেলার তৃণমূল স্তরের কর্মিদের নিয়ে বৈঠক করে কলকাতায় ফিরবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জঙ্গলমহলে নতুন করে মাওবাদী কার্যকলাপ শুরু হ‌ওয়ার পর মুখ্যমন্ত্রীর এই দুই জেলা সফর যথেষ্ট ইঙ্গিতপূর্ণ বলেই মনে করা হচ্ছে।