Date : 2022-10-01

Kolkata Police : কলকাতা পুলিশের গুন্ডা দমন শাখার হাতে ৫ ভুয়ো সেনা

সঞ্জনা লাহিড়ী, সাংবাদিক: কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগের গুন্ডা দমন শাখার হাতে ৫ ভুয়ো সেনা। অভিযুক্তদের ধর্মতলা চত্বর ও তার আসে পাশের এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। ধৃতদের ব্যাঙ্কশাল আদালতে তোলা হলে যে পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক।

ভারতীয় সেনার পরিচয় দিয়ে নেটমাধ্যমে সক্রিয় হয়ে উঠেছিল বছর বাইশের শিবম পাণ্ডে। উত্তর প্রদেশের গাজীপুরের বাসিন্দা শিবম ফেসবুক ইনস্টাগ্রামে সেনা পরিচয় দিয়ে ভারতীয় সেনার তিন বাহিনীর প্রধানের নাম করে বই বিক্রি করতেও শুরু করে। সেই বইয়ের নাম ‘ভারতীয় সেনা কি আনকহি কহানি’। বিষয়টি নজরে আসে ভারতীয় সেনার কলকাতার গোয়েন্দাদের। শুধু তাই নয়, শিবম ও তাঁর ৪ সাগরেদ ভারতীয় সেনায় চাকরি পাইয়ে দেওয়ার নাম করে বেকারদের কাছ থেকে মোটা টাকা হাতিয়ে প্রতারণা করে বলেও অভিযোগ ওঠে। কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দাদের নজরে আসতেই তদন্ত শুরু করে তাঁরা।

সূত্র মারফত খবর পেয়ে সোমবার রাতে ধর্মতলার একটি অভিজাত হোটেলের সামনে থেকে গ্রেফতার করা হয় শিবমকে। পরে আসে পাশের এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয় আরও ৪ জনকে। গ্রেফতারের সময় শিবমের পরনে ছিল সেনাবাহিনীর কেমোফ্লেজ পোশাক। এছাড়াও সেনাবাহিনীর লেফটেন্যান্ট জেনারেলের পদমর্যাদার বেশ কয়েকটি পোশাক এবং একটি ভুয়ো সেনা পরিচয়পত্র পাওয়া গেছে শিবমের কাছ থেকে। পুলিশের অনুমান, ওই পরিচয়পত্র এবং পোশাকের সাহায্যেই সেনা অফিসার সেজে প্রতারণা করত শিবম পাণ্ডে। ধৃতরা সকলেই উত্তরপ্রদেশের গাজীপুরের বাসিন্দা। বেশ কিছু ভুয়ো নথি উদ্ধার করা হয়েছে অভিযুক্তদের থেকে। অভিযুক্তদের মঙ্গলবার ব্যাঙ্কশাল আদালতে তোলা হলে পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেয় আদালত। অভিযুক্তরা কতজনের সঙ্গে প্রতারণা করেছে, কতদিন ধরে এই চক্র জাল বিস্তার করেছিল তা খতিয়ে দেখছে গোয়েন্দারা।