Date : 2022-10-01

একাধিক বিশ্ববিদ্যালয়ে অনলাইন পরীক্ষার দাবি পড়ুয়াদের। অন্যদিকে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের নামে পড়ল নিখোঁজ পোস্টার

নাজিয়া রহমান, সাংবাদিক : যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের নামে পড়ল নিখোঁজ পোস্টার বিশ্ববিদ্যালয় চত্ত্বরে। পোস্টার সাটা রয়েছে উপাচার্যের ঘরের সামনেও। পড়ুয়ারাই এই পোস্টার লাগিয়েছে বলে খবর।

অনলাইন না অফলাইন। কি ভাবে হবে স্নাতক ও স্নাতকোত্তরের পরীক্ষা? এই নিয়ে রাজ্যের বেশ কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলনে সামিল পড়ুয়ারা। কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্গত ৪৮টি কলেজে স্নাতকস্তরের সমস্ত লিখিত পরীক্ষা অনলাইনে হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ । কল্যাণীর পথেই হেঁটেছে বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয়ও। সেখানেও এই বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্ভুক্ত ৫৬টি কলেজের স্নাতকস্তরের সমস্ত লিখিত পরীক্ষা এবছর অনলাইনেই। তবে স্রোতের বিরুদ্ধে হেঁটে রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় সিদ্ধান্ত নিয়েছে, স্নাতক ও স্নাতকোত্তরের সমস্ত পরীক্ষাই হবে অফলাইনে। বিশ্ববিদ্যালয়ের এই সিদ্ধান্ত মানতে নারাজ পড়ুয়ারা। মঙ্গলবার উপাচার্যের ঘরের সামনে অনলাইন পরীক্ষার দাবিতে বিক্ষোভ দেখায় ছাত্র ছাত্রীরা।পড়ুয়াদের দাবি, ১৮ মে ২০২২ থেকে স্নাতকের অফলাইন পরীক্ষা হওয়ার কথা। বিশ্ববিদ্যালয়ের এই সিদ্ধান্ত ছাত্র-ছাত্রীদের স্বার্থ বিরোধী। রাজ্যের অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয় অনলাইনে পরীক্ষার ঘোষণা করেছে। কিন্তু তাদের বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ছাত্র ছাত্রীদের সমস্যার কথা জানলেও, তাঁরা সমাধান করেনি। তাই অবিলম্বে ঘোষিত সিমেস্টার পরীক্ষা অনলাইনে করার দাবি জানিয়েছে পড়ুয়ারা।শুধু রবীন্দ্রভারতী নয়। আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারাও অনলাইনে পরীক্ষা নেওয়ার দাবি তুলে এদিন পার্ক সার্কাস ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ দেখায়।

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ অফলাইনেই পরীক্ষার সিদ্ধান্তে অনড়। ইতিমধ্যেই সেখানে পরীক্ষা নেওয়া শুরুও হয়ে গিয়েছে। তবে বিতর্ক সেখানেও ছড়িয়েছে। খবর, বিশ্ববিদ্যালয়ের একাংশ শিক্ষক থেকে পড়ুয়া অনলাইন পরীক্ষার পক্ষেই। তবে আপাতত অফলাইনেই হচ্ছে যাদবপুরের ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের সিমেস্টার। সেই বিতর্কের মধ্যেই ক্যাম্পাসে টানা গরহাজির উপাচার্য। অধিকাংশ সময়ই বাড়ি থেকেই প্রশাসনিক কাজ সামলাচ্ছেন বলেই জানা গেছে । আর এই আবহেই যাদবপুর বিশ্ববিদ্যলয়ের দেওয়ালে পড়ল উপাচার্যের নামে নিখোঁজ পোস্টার।    যদিও এনিয়ে উপাচার্যের কোনও মতামত জানা যায়নি।

অন্যদিকে অফলাইন পরীক্ষা নেওয়ার পক্ষেই সাঁই রয়েছে প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের।
দ্রুত প্রেসিডেন্সির বিভাগীয় শিক্ষা বিষয়ক কমিটিগুলি এই বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে বলে জানা গেছে। বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষাও অফলাইনে নেওয়া হবে বলেই জানা গেছে।

আসন্ন সিমেস্টারের পরীক্ষা নেওয়া হোক অনলাইনেই। শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসুর কাছে এই আবেদন জানিয়েছে তৃণমূল ছাত্র পরিষদ। তাদের বক্তব্য, করোনার জন্য ঠিকমত ক্লাস হয়নি। তাই ছাত্র ছাত্রী দের স্বার্থে দ্বিতীয়, চতুর্থ ও ষষ্ঠ সিমেস্টারের পরীক্ষা অনলাইনে নেওয়া হোক। এবিষয়ে দ্রুত সিদ্ধান্ত নিতে শিক্ষামন্ত্রীর কাছে আবেদন জানিয়েছে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সদস্যরা।

সিমেস্টার পরীক্ষা অফলাইনে না অনলাইনে হবে,তার ভার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপরই ন্যস্ত করেছে শিক্ষা দফতর। বিশ্ববিদ্যালয়ের বিধি মেনে সিদ্ধান্ত নিন কর্তৃপক্ষই, উপাচার্যদের চিঠি দিয়ে সে কথা জানিয়েছে উচ্চ শিক্ষা দফতর।