Date : 2022-10-02

ঘূর্ণিঝড় অশনির অভিমুখ কোনদিকে! বাংলায় এই ঝড়ের কতটা প্রভাব পড়বে

শাহিনা ইয়াসমিন, সাংবাদিক: ধেয়ে আসছে অশনি। বঙ্গোপসাগরের উপরে ইতিমধ্যেই ঘনীভূত হয়েছে অতি গভীর নিম্নচাপ। রবিবার বিকেলের মধ্যেই নিম্নচাপ ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে পারে। অশনি নামক এই ঘূর্ণিঝড় নিয়ে সপ্তাহের শুরু থেকেই উদ্বেগ থাকলেও, শনিবারই স্বস্তির খবর দিয়েছে আবহাওয়া দফতর।

পূর্বাভাষ জানানো হয়েছে,
উত্তর ওড়িশা-অন্ধ্র প্রদেশ উপকূলের কাছে ল্যান্ডফল করার পর ঘূর্ণিঝড়টি বঙ্গোপসাগরের উত্তর-পশ্চিম দিক দিয়ে অতিক্রম করবে। আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, নিম্নচাপটি ইতিমধ্যেই সাগর থেকে উত্তর পশ্চিম অভিমুখে উপকূলের দিকে অগ্রসর হয়েছে। ১০ মে বিকেল অবধি সেই পথেই এগোবে, এরপর উত্তর বা উত্তর-পূর্ব অভিমুখে এগোতে শুরু করবে।আবহাওয়া দফতর সূত্রে জানানো হয়েছে আগামী ১০ মে অন্ধ্র-ওড়িশা উপকূলের কাছে পৌঁছবে ঘূর্ণিঝড়টি, সেখান থেকে দক্ষিণ ওড়িশা উপকূলের দিকে বাঁক নেওয়ার প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে। এরপর তা ধীরে ধীরে এগোতে পারে বাংলাদেশের দিকে। ঘূর্ণিঝড়ের বাঁক নেওয়ার পরই শক্তিক্ষয় শুরু হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। রবিবার তেমন ঝড়ের দাপট বোঝা না গেলেও ৯ মে থেকে ওড়িশার সমুদ্র উত্তাল হতে শুরু করবে। ১০ মে তা আরও ভয়ঙ্কর রূপ ধরবে। এই সময়ে বাতাসের গতিবেগ প্রতি ঘণ্টা ৮০ থেকে ৯০ কিলোমিটার থাকবে। আজ ওড়িশার উপকূলে বাতাসের গতিবেগ থাকবে ঘণ্টায় ৪০ থেকে ৫০ কিলোমিটার। সর্বোচ্চ গতিবেগ ৫০ থেকে ৬০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা হতে পারে। আগামী ১১ মে অবধি ঝোড়ো হাওয়া বওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলেই জানানো হয়েছে আবহাওয়া দফতর সূত্রে।

নিম্নচাপের প্রভাবে আজ বিকেল থেকে ওড়িশার উপকূলবর্তী এলাকাগুলিতে, বিশেষত গঞ্জাম, গজপতি, খুরদা, জগত্‍সিংপুর ও পুরীতে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত হতে পারে। ১০ মে-র পর থেকে ভারী বৃষ্টির স�