Date : 2022-06-30

আমার জন্মদিনে আসার কথা ছিল KK র, কিন্তু সংগীতের মঞ্চ থেকে চিরবিদায় নিয়েছেন তিনি।আক্ষেপের সুরে বললেন মেয়র

ষষ্ঠী চট্টোপাধ্যায়, সাংবাদিক:- হাম রেহে ইয়া না রেহে কাল,
কাল ইয়াদ আয়েঙ্গে হার পাল……..

.সংগীতের মঞ্চ থেকে চির কালের জন্য বিদায় নিলেও তাঁর কণ্ঠ থেকে একের পর এক যে সুর অগনিত মানুষকে কাছে টেনে নিয়েছিলেন তা আজ বলার অপেক্ষা রাখে না। মঙ্গলবার কলকাতা নজরুল মঞ্চে KK আকস্মিক মৃত্যুতে বেশ কিছু প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

কলকাতা পুরসভার মেয়র তথা পুর নগর উন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম সব প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন।কিন্তু KK মৃত্যুতে তাঁর মন ভারাক্রান্ত।
অত্যন্ত বেদনাদায়ক কেকের মতন একজন সংগীতশিল্পী আজ আর নেই। স্টেজ পারফরম্যান্স সময় গতকাল ব্যাথা অনুভব করেছিল তা সত্ত্বেও দর্শকদের আবেগ উদ্দীপনা মোহিত হয়ে গান গেয়েছিলেন। হোটেলে গিয়ে তারপর অসুস্থতা পরবর্তী সময়ে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় আর বাঁচানো গেল না। ১লা জানুয়ারি আমার জন্মদিনে চেতলা অগ্রণী তে আসার কথা ছিল। আজ আর তিনি নেই। KK এর গান নিয়ে কলেজ ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে সবসময়একটা উদ্দীপনা ছিল। কেকের জনপ্রিয়তা এতটা বেশি তাই জন্য কালকে(মঙ্গলবার)অগনিত কলেজ ছাত্র-ছাত্রীদের প্রচুর ভিড় হয়েছিল । কেএমডি এ থেকে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল এরপর আর নজরুল মঞ্চে কলেজ অনুষ্ঠান করতে দেয়া হবে না, কিন্তু সেটা এখনো পর্যন্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। মঙ্গলবার নবীন ছেলে মেয়েরা পাগলের মতন করছিল ।আর এসি আমাদের ঠিক ছিল ক্যাপাসিটি যা ছিলো তার চেয়ে বেশি লোক হলে একটু সমস্যা হবেই। একটা লিমিটেশন আছে যেটা ২৭০০ক্যাপাসিটি সেখানে ৭০০০ হলে নিঃশ্বাস-প্রশ্বাসের একটা সমস্যা হয়। পাঁচিল টপকে গতকাল ছেলেমেয়েরা ভিতরে প্রবেশ করেছে। কন্ট্রোল করা যায়নি মানুষের জন্য। তার মধ্যে পুলিশ লাঠিচার্জ ও করতে পারে না। কেএমডিএ থেকে গতকাল নজরুল মঞ্চে বলা হচ্ছে আর কলেজ প্রোগ্রাম হতে দেয়া হবে না। এখনো পর্যন্ত কোন সিদ্ধান্ত হয়নি। Kk এর মৃত্যু নিয়ে কোন বিতর্কিত করে লাভ নেই। আমি এখন আছি এক মিনিট পর নাই থাকতে পারি।