Date : 2022-06-27

কর্মসংস্থানে বড় ঘোষণা মোদীর

পৌষালী সেনগুপ্ত, নিউজ ডেস্ক ঃ অর্থনীতি ও মুদ্রাস্ফীতিতে দেশ যখন ধুঁকছে তখন দেশের কর্মসংস্থান নিয়ে বড় ঘোষণা প্রধানমন্ত্রী দফতরের।আগামী দেড় বছরে ১০ লক্ষ চাকরি হবে।প্রতিটি মন্ত্রকেই এবং বিভাগগুলিতে দক্ষ কর্মী নিয়োগ করা হবে।প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রকগুলির কাজের ধরন বুঝে নিযুক্ত কর্মীদের দেওয়া হবে দায়িত্ব।তিনি প্রতিটি মন্ত্রককে নির্দেশ দিয়েছেন বলে টুইট করেছে প্রধানমন্ত্রী দপ্তর। এই প্রকল্পের নাম তিনি দিয়েছেন ‘মিশন মোড’। টুইটে জানানো হয়েছে প্রতিটি মন্ত্রকেই হিউম্যান রিসোর্সের কর্মী প্রয়োজন।সামগ্রিক পরিস্থিতি বিবেচনা করেই তাই মানবসম্পদে জোর দেওয়া হয়েছে।আগামী দেড় বছরের মধ্যেই সেই নিয়োগ সম্পন্ন করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। সংশ্লিষ্ট মন্ত্রককে তা জানানও হয়েছে। কেন্দ্রের তরফে বিপুল কর্মসংস্থানের খবরে উচ্ছ্বসিত চাকরিপ্রার্থীরা। আব কি বার মোদী সরকারে মোদীর ইন্যতম ইস্যু ছিল কর্মসংস্থান। কিন্তু এরপর যমুনা দিয়ে বয়ে গেছে অনেক জল। কর্মসংস্থান দেশে প্রায় হয়নি বললেই চলে।

বাবরংবার সেই ইসুতে বিরোধীরা বিঁধেছে কেন্দ্রের মোদী সরকারকে। প্রত্যাশা পূরণ না হওয়ার জন্য বিরোধীরা বারংবার বেকারত্ব নিয়ে খোঁচা দিয়েছেন মোদীকে। এবার সেই সমালোচনার জবাব দিতেই প্রধানমন্ত্রী মানবসম্পদ বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। যদিও প্রধানমন্ত্রী দফতরের এই ঘোষণার পরেই কটাক্ষ করেছেন অনেকেই। মূল্যবৃদ্ধি, মুদ্রাস্ফীতি গত ৭৫ বছরের মধ্যে সবচেয়ে খারাপ পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে রয়েছে দেশ। আর প্রধানমন্ত্রী শুধু ‘টুইটার টুইটার’ খেলছেন বলে কটাক্ষ করেছেন জাতীয় কংগ্রেসের মুখপাত্র রনদীপ সিং সুরজেওয়ালা।অন্যদিকে, কেন্দ্র-রাজ্য সুসম্পর্কে জোর দিতে আগামী ১৬ ও ১৭ তারিখ ধর্মশালায় বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যসচিবদের সঙ্গে বৈঠক করবেন প্রধানমন্ত্রী। ভিডিও কনফারেন্সে তাঁদের সঙ্গে কথা বলবেন বলে জানা গিয়েছে। তবে বর্তমান পরিস্থিতির দিকে তাকিয়ে প্রধানমন্ত্রীর দফতরের এই ঘোষণা বহু চাকরি প্রার্থীর মনে বেশ আশার সঞ্চার ঘটিয়েছে তা বলাই বাহুল্য।