Date : 2022-12-09

সোমবারই আইএফএ-তে নতুন সচিব, সহ সভাপতির দৌড়ে এগিয়ে স্বরূপ,সৌরভ

মৈনাক মিত্র, সাংবাদিক; সোমবারই আইএফএ-তে নতুন সচিব আসছেন চেয়ারে। জয়দীপ মুখোপাধ্যায়ের বিদায়ের পর নতুন

সচিব কে হন সেই নিয়ে জল্পনা তুঙ্গে। নাম ভাসছে দত্ত বাড়ির অনির্বাণ ওরফে জয় দত্তের। আইএফএ-তে দত্ত বাড়ির যে

প্রতিপত্তি, তা অনুযায়ি জয়ের এই পদে আসাই অনুমেয়। যদিও আইএফএ সচিবের দৌড়ে রয়েছেন বাবুন বন্দ্যোপাধ্যায়ও। বেঙ্গল

হকি অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি তিনি। ফলে ক্রীড়া প্রশাসক হিসেবে যথেষ্টই নাম রয়েছে তাঁর। মোহনবাগান ক্লাবেরও কর্তা

হিসেবে তিনি বেশ কয়েকবছর কাজ করছেন। ফলে সেই অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়েই আইএফএ-তে আসতে পারেন স্বপন

বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি যদি স্বেচ্ছায় না সরে যান দৌড় থেকে, সেক্ষেত্রে আইএফএ চেয়ারের লড়াই নিয়ে ময়দানে যে অনেকটাই

দড়ি টানাটানি হবে তা বলাই যায়। যদিও আইএফএ চেয়ারম্যান সুব্রত দত্তের পাল্লা যার দিকে ভারি থাকবে, তারই আইএফএ

সচিব পদে আসার সমভাবনা বেশি বলে সুত্রের খবর। দীর্ঘদিনের প্রশাসক বাপি দার হাতেই আইএফএ-র অধিকাংশ ভোট।

আইএফএ এবং বাংলার ফুটবলের সঙ্গে তার নাড়ির টান। ফলে তিনিই যে শেষ কথা বলবেন তা একপ্রকার নিশ্চিত। এদিকে

আইএফএ-তে সোমবার থেকেই নতুন ভোরের সূর্য উঠছে। জয়দীপ মুখোপাধ্যায় সচিব পদে বিদায় জানানোর পর ইতিমধ্যেই

নতুন গভার্নিং বডি তৈরি হয়েছে। সোমবারই বেছে নেওয়া হবে সহ সভাপতিদের। যদি সব ঠিক ঠাক থাকে তাহলে সেই পদে

আসছেন রাজ্যের মন্ত্রীর ভাই তথা দক্ষিণ কলকাতার দাপুটে নেতা এবং দীর্ঘদিনের ফুটবল প্রশাসক স্বরূপ বিশ্বাস। সহ সভাপতি

পদে স্বরূপের সঙ্গেই আসতে পারেন সাদার্ন সমিতির কর্তা সৌরভ পাল। অজিত বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্মদিনে রাজ্যের ক্রীড়া এবং

রাজনৈতিক ব্যক্তিদের এক জায়গায় এনেছিলেন স্বরূপ ও সৌরভ। ফলে তারা তাঁদের প্রশাসকের দক্ষতার প্রমাণ আগেই দিয়েছেন।

সুরুচি সঙ্ঘ এবং সাদার্ন সমিতি ক্লাবের দায়িত্ব তারা দুজনেই দীর্ঘদিন ধরে পালন করছেন। ফলে বাংলার ফুটবলের তাদের মতো

তরুণ মুখ আসলে, আদতে ভালোই হবে। সেই কারনেই তাঁদের সহ সভাপতি পদে বসানো হতে পারে। স্রেফ অভিজ্ঞতাই নয়,

তারুণ্যতেও জোর দিতে চাইছে আইএফএ। আরেক সহ সভাপতি পদে আসতে পারেন মুর্শিদাবাদের বিশ্বজিত ভাদুড়ি। যদিও শেষ

লগ্নে বাজিমাত করতে পারেন প্রাক্তন ফুটবলার বিদেশ বসুও।