Date : 2022-11-27

আদিবাসীদের দুয়ারে সরকার। কর্মসূচি শুরু ১৩ জুন থেকে।

সঞ্জু সুর, সাংবাদিক : সবেমাত্র রাজ্যজুড়ে দুয়ারে সরকার কর্মসূচি শেষ হয়েছে। এখন পালা দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে পাওয়া আবেদনপত্র খতিয়ে দেখে পরিষেবা পৌঁছে দেওয়ার। কিন্তু তার মধ্যেই ফের একবার দুয়ারে সরকার কর্মসূচি নিতে চলেছে সরকার। এই কর্মসূচি অবশ্য শুধুমাত্র রাজ্যের আদিবাসী অধ্যুষিত অঞ্চল বা জেলার জন্য। মঙ্গলবার মুখ্যসচিবের নেতৃত্বে বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

সপ্তাহ দুয়েক আগে পুরুলিয়া সফরকালে মুখ্যমন্ত্রী ওই জেলার কিছু আদিবাসী মানুষের সমস্যার কথা বলেছিলেন। তিনি তথ্য তুলে ধরে বলেন যে জমি মিউটেশন করতে গিয়ে ওইসব আদিবাসীরা কি সমস্যায় পড়েছেন‌। মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ ছিলো জমির মিউটেশন করতে গিয়ে হয়রানির শিকার হচ্ছেন আদিবাসী সম্প্রদায়ের মানুষ। এর বিহিত করতে মঞ্চ থেকেই দায়িত্ব দিয়েছিলেন মুখ্যসচিবকে।

মঙ্গলবার আলিপুরদুয়ারে মুখ্যমন্ত্রী

মুখ্যমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছিলেন প্রয়োজনে দুয়ারে সরকার ক্যাম্প করে আদিবাসীদের এই সমস্যা মেটাতে হবে। সূত্রের খবর সেকথা মাথায় রেখে মঙ্গলবার মুখ্যসচিব সব জেলার জেলাশাসকদের নিয়ে একটি বৈঠক করেন। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ মতো মূলতঃ রাজ্যের বিভিন্ন জেলার আদিবাসী প্রধান এলাকায় আবার দুয়ারে সরকার ক্যাম্প করা হবে বলেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। জুন মাসের ১৩ তারিখ থেকে জুলাই মাসের ৩১ তারিখ পর্যন্ত এই ক্যাম্প চলবে। সিদ্ধান্ত হয়েছে সপ্তাহে চারদিন ক্যাম্প করা হবে। প্রয়োজনে শনি ও রবিবারও ক্যাম্প করা হবে। নবান্ন সূত্রে খবর, বৈঠকে মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী জানিয়েছেন এই ক্যাম্পে শুধু জমি মিউটেশন নয়, স্বাস্থ্যসাথী, খাদ্যসাথী সহ সরকারের সব প্রকল্পের কাজ‌ই হবে। সেইজন্য প্রশাসনিক আধিকারিকদের আলাদা করে তৈরি থাকতে হবে। প্রয়োজনে স্থানীয় আদিবাসী যুবকদের প্রশিক্ষণ দিয়ে এইসব ক্যাম্পগুলোতে ফরম পূরণের কাজে লাগানো যেতে পারে বলেও মুখ্যসচিব নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানা গেছে। পাশাপাশি এই ক্যাম্পের বিষয়ে ওইসব এলাকায় গিয়ে নিবিড় প্রচার করার কথাও বলা হয়েছে। প্রসঙ্গত ১৩ মে থেকে শুরু হ‌ওয়া চতুর্থ দফার দুয়ারে সরকার ক্যাম্প শেষ হয়েছে মে মাসের শেষে। রাজ্যজুড়ে ২৩,৫৬৪ টি ক্যাম্পে প্রায় দুই লাখেরও বেশি মানুষ নিজেদের আবেদন নিয়ে এসেছিলেন।