Date : 2022-09-26

নাগাল্যান্ড গুলিকাণ্ডে এসওপি মানেনি সেনা, চার্জশিটে জানাল নাগাল্যান্ড পুলিশ

মাম্পি রায়, নিউজ ডেস্ক : নাগাল্যান্ড গুলিকাণ্ডে স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিওর বা এসওপি মানেননি সেনা কর্তারা। শনিবার জানাল নাগাল্যান্ড পুলিশ। উল্লেখ্য, নাগাল্যান্ডে জঙ্গি সন্দেহে সেনাবাহিনীর কমান্ডোদের গুলিতে অন্তত ১২ জনের মৃত্যু হয়েছিল। গত বছর ৫ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় নাগাল্যান্ড মন জেলার ওটিং গ্রামে সেনার প্যারা স্পেশ্যাল ফোর্সের গুলিতে মৃত্যু হয় নিরীহ গ্রামবাসীদের। মর্মান্তিক ঘটনায় তোলপাড় পড়ে যায় দেশে। স্থানীয়রা অভিযোগ করেছিলেন, তাঁদের গাড়িকে থামতে বলেনি সেনা। সরাসরি গুলি ছোড়া হয়েছিল। সেদিন রাতে মৃত গ্রামবাসীদের পোশাক পরিবর্তনের চেষ্টার অভিযোগও উঠেছে। ঘটনার পর কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সরব হয়েছিল বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি। আফস্পা প্রত্যাহারের দাবিও জোরালো হয়েছিল। ঘটনায় ১১ জন জখম হয়েছিলেন। এক সেনা জওয়ানের মৃত্যু হয়।

ডিসেম্বর শেষেই রাজ্যের বিশেষ তদন্তকারী দলকে জওয়ানদের জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দিয়েছিল সেনা। যদিও রাজ্যের তদন্তকারী দলকে নাগাল্যান্ড হত্যাকাণ্ডের তদন্তের অনুমতি কী করে দেওয়া হল, সেই প্রশ্নও ওঠে। কারণ এরাজ্যে এখনও আর্মড ফোর্সেস স্পেশাল পাওয়ার অ্যাক্ট কার্যকর রয়েছে। যে আইনের ফলে কেন্দ্রের অনুমতি ছাড়া সেনার বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করতে পারে না রাজ্য।

ডিসেম্বরের এই গুলিকাণ্ডে এবার চার্জশিট পেশ করল নাগাল্যান্ড পুলিশ। তাতে নাম রয়েছে সেনাবাহিনীর স্পেশ্যাল ফোর্সের ৩০ জনের। তাঁদের মধ্যে রয়েছেন একজন সেনা আধিকারিকও। এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, রাজ্যের পুলিশ কর্তা জানিয়েছেন, এই ঘটনায় যে সিট গঠন করা হয়েছিল, তারা ওই চার্জশিট পেশ করেছে আদালতে। চার্জশিটে সিটের অভিযোগ, ঘটনার সময় ২১ নম্বর প্যারা স্পেশ্যাল ফোর্সের জওয়ানরা ‘স্ট্যান্ডার্ড অপারেশন প্রসিডিওর’ তথা এসওপি মেনে চলেনি।  এর জেরে হত্যাকাণ্ড ঘটে গিয়েছে। চার্জশিটে নাম থাকা সেনা জওয়ানদের জেরা করার অনুমতি চাওয়া হয়েছে। এবিষয়ে রাজ্য পুলিশের তরফে চিঠি পাঠানো হয়েছে প্রতিরক্ষা মন্ত্রকে।