Date : 2022-08-10

পুলওয়ামা জঙ্গি আক্রমনে ঝাঁজরা হয়েছে শরীর।অকেজহয়েছে মেরুদন্ড,কিন্তু মেনেনি কোন সরকারি আর্থিক সুযোগ সুবিধে, হাই কোর্টে নিগমপ্রিয় চক্রবর্তী।

ষষ্ঠী চট্টোপাধ্যায়, সাংবাদিক:- বৃহস্পতিবার বিচারপতি অরিন্দম মুখোপাধ্যায়ের নির্দেশ, CRPF কর্তৃপক্ষকে অবিলম্বে একটি মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করার নির্দেশের পাশাপাশি তাঁর সুচিকিৎসা বন্দোবস্ত করার নির্দেশ দেন।এদিন মামলাকারীর নিগমপ্রিয় চক্রবর্তী পক্ষের আইনজীবী জানান তিন মাসের মধ্যেই ওই কাজ করতে হবে CRPFকেএবং তিনি জওয়ান হিসেবে কাজ করতে না পারলেও তাঁকে কর্মসংস্থান করে দিতে হবে। যতদনি পর্যন্ত না এই ব্যবস্থা হয় ততদিন তাকে বেতন দিতে হবে বলেও নির্দেশ দেয় সিঙ্গেল বেঞ্চ।

মামলাকারির পক্ষের আইনজীবী সুদীপ্ত পন্ডা জানিয়েছেন নবদ্বীপের নিগমপ্রিয় চক্রবর্তী ২০১৬ সালে আচমকাই পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলার মুখে পড়েন সিআরপিএফের কনভায়েরওপর।পাম্পেররোর কাছে বাসটি পৌঁছতেই সামনে চলে আসে একটি ছোট আল্ট্রা গাড়ি। বাসের চালক বাধ্য হয়েই বাসটি থামিয়ে দেন।বাসটি থামতেই স্বয়ংক্রিয় এ কে ৪৭ দিয়ে ঝাঁজরা করে দেওয়া হয় বাসের উইন্ড্র স্ক্রিন।
২৬শে জুন ২০১৬সালে টানা ২০মিনিট ধরে চলে গুলি পাল্টা গুলি।বাসের দরজা দিয়ে উঠেই ডান দিকেরবসে ছিলেন নিগমপ্রিয়।কিছুক্ষণ অপক্ষের পর নিজের রাইফেল দিয়ে জঙ্গিদের জবাব দিতে থাকে।বা হাতে প্রথম বুলেট লাগে।সে সময় জঙ্গিরা বড় জোর ৩০ফুট দূরে ছিল।
ওই হামলায় শহিদ হন ৮ CRPF জওয়ানের। নিগমপ্রিয় বাম হাতে একটি গুলি লাগে। অন্য একটি গুলি লাগে তার শিরদাঁড়ায়। সেই গুলিটি এখনও সেখানে বিঁধে রয়েছে। ওই গুলির লড়াইয়ে একা হাতে বেশ কয়েকজন জঙ্গিকে ঘায়েল করেন নিগমপ্রিয়। তার লড়াইয়ের জন্য জওয়ানদের বাসে উঠতে পারেনি জঙ্গিরা।

৮০% বিশেষভাবে সক্ষম নিগমপ্রিয়। এখন চিকিত্সা চললেও চাকরি পরবর্তী কোনও সুযোগ সুবিধে তিনি পাচ্ছেন না।নিরুপায় কলকাতা হাইরোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন তিনি।

আদালতে নিগমপ্রিয়র দাবি, জঙ্গিদের সঙ্গে লড়াইয়ে মারাত্মক আহত হয়ে জীবনের চলাফেরার ক্ষমতা হারিয়ে ফেলেছি।কিন্তু চাকরি পরবর্তী কোনও সুযোগ সুবিধে দেওয়া হচ্ছে না। গ্যালেট্রি সন্মান এর জন্য তাঁর নাম সুপারিশ করা হয়নি। একবারের জন্যও তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়নি। চিকিত্সার জন্য যাতায়াতের খরচ তাঁকেই বহন করতে হয়।
CRPF র ১৬১ নম্বর ব্যাটেলিয়ানের নিগম প্রিয় আজ ঠিক ভাবে বসতেও পারেন না।অতীতের সেই ঘটনার ছবি যখন চোখের সামনে ভেসে ওঠে সে সময় একটাই শব্দ….. উফ