Date : 2022-12-01

মোদীকে বিপাকে ফেলতে সোনিয়ার নির্দেশে চক্রান্ত করেছেন আহমেদ প্যাটেল, অভিযোগ বিজেপির

সোমদত্তা বসু, নিউজ ডেস্ক:- ২০০২ সালে গুজরাত হিংসার ঘটনায় প্রয়াত কংগ্রেস নেতা আহমেদ প্যাটেলের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ করে আমেদাবাদ দায়রা আদালতে হলফনামা জমা দিয়েছে গুজরাত পুলিশের সিট। হলফনামায় অভিযোগ করা হয়েছে সমাজকর্মী তিস্তা শীতলবাদ এই ষড়যন্ত্রে আহমেদ প্যাটেলের সহকারি ছিলেন। তার থেকে ৩০ লক্ষ টাকা নিয়েছিলেন তিনি। বিজেপির অভিযোগ কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধির নির্দেশেই নাকি ২০০২ সালে গুজরাতে নরেন্দ্র মোদী সরকারকে ফেলার চেষ্ঠা করেছিল গুজরাত কংগ্রেস নেতৃত্ব। বিজেপির সর্বভারতীয় মুখপাত্র সম্বিত পাত্র জানিয়েছেন, নরেন্দ্র মোদীকে গুজরাতে বিপাকে ফেলতে চক্রান্ত করেছিলেন সোনিয়া গান্ধি। তাঁর নির্দেশেই আহমেদ প্যাটেল নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র রচনা করেছিলেন। গুজরাত হিংসা মামলায় সম্প্রতি নরেন্দ্র মোদীকে ক্লিনচিট দিয়েছে দেশের শীর্ষ আদালত। এরপরেই গুজরাত হিংসার ঘটনায় ভুয়ো তথ্য দেওয়ার অভিযোগে সমাজকর্মী তিস্তা শীতলবাদকে গ্রেফতার করে গুজরাত পুলিশ। যদিও তিস্তার গ্রেফতারি নিয়ে আন্তর্জাতিক সমালোচনার সম্মুখীন হতে হয়েছে মোদী সরকারকে। গুজরাত হিংসায় ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলির পাশে ছিলেন সমাজকর্মী তিস্তা। তাদের আইনি সহায়তা করেছেন তিনি। আহমেদ প্যাটেল ও তিস্তা শীতলবাদের বিরুদ্ধে নয়া অভিযোগ নিয়ে সমালোচনা করেছে কংগ্রেস নেতৃত্ব। কংগ্রেসের পক্ষ থেকে বিবৃতি দিয়ে বলা হয়েছে, সিট আদতে বিরোধীদলের প্রতি রাজনৈতিক হিংসা মেটানোর জন্য মোদী সরকারের অস্ত্র। সিট বিজেপির ইশারায় কাজ করছে বলে তোপ দাগে কংগ্রেস নেতৃত্ব। কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক জয়রাম রমেশ বলেন, গুজরাত হিংসা থেকে নিজেকে বাঁচাতে এটা প্রধানমন্ত্রীর নিয়মতান্ত্রিক কৌশল। তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ী নরেন্দ্র মোদীকে রাজধর্ম পালনের কথা মনে করিয়ে দেন। কারণ গুজরাত হিংসা নিয়ন্ত্রণে তার অক্ষমতার পাশাপাশি অনিচ্ছাও ছিল।