Date : 2022-08-18

‘সংসদ ভবন চত্বরে আর ধরনা-বিক্ষোভ নয়’, সংসদের সচিবালয়ের বিজ্ঞপ্তি ঘিরে বিতর্ক, মোদী সরকারকে বিঁধল বিরোধীরা

মাম্পি রায়, নিউজ ডেস্ক : সংসদ ভবন চত্বরে আর ধরনা-বিক্ষোভ নয়। বিজ্ঞপ্তি জারি করল সংসদের সচিবালয়। অসংসদীয় শব্দ নিয়ে বিতর্কের আবহে ফের নতুন বিজ্ঞপ্তি ঘিরে চরমে উঠেছে রাজনৈতিক তরজা। মোদী সরকারকে বিঁধল কংগ্রেস থেকে শুরু করে তৃণমূল কংগ্রেস বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি।

অসংসদীয় শব্দ নিয়ে বিতর্কের আবহে ফের নতুন বিজ্ঞপ্তি করল সংসদের সচিবালয়। নতুন বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে- অধিবেশন চলাকালীন সংসদ চত্বরে ধরনা, বিক্ষোভ প্রদর্শন করা যাবে না। এমনকি সংসদ ভবনের সংশ্লিষ্ট এলাকায় অনশন বা ধর্মীয় অনুষ্ঠানও করা যাবে না।

18 জুলাই সংসদে বাদল অধিবেশন শুরু হচ্ছে। তার আগে রাজ্যসভার সেক্রেটারি জেনারেল পিসি মোদীর জারি করা এই বিজ্ঞপ্তির বিরুদ্ধে সরব হয়েছে বিরোধী শিবির। কেন্দ্রকে কটাক্ষ করে রাজ্যসভায় কংগ্রেসের মুখ্য সচেতক জয়রাম রমেশ টুইটে লিখেছেন, বিশ্বগুরুর নতুন ফরমান-ডরনা তথা ধরনা মানা হ্যায়। তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায় বলেন, বহুকাল ধরে সংসদ ভবনের বাইরে প্রতিবাদ ধরনায় বসে আসছেন সাংসদরা। এধরণের বিজ্ঞপ্তি জারি করে সাংসদদের অধিকারে হস্তক্ষেপ করছে মোদী সরকার।

বিরোধীদের কটাক্ষের পাল্টা প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি সুকান্ত মজুমদার। তিনি বলেন, ধরনা-অবস্থানের জন্য যন্তরমন্তর রয়েছে। শাসক হোক বা বিরোধী, সকলের জন্য একই নিয়ম।
এক ঝলকে দেখে নেওয়া যাক অসংসদীয় শব্দের তালিকা –
একদিন আগে অসংসদীয় শব্দের তালিকা প্রকাশ করেছিল সংসদের সচিবালয়। তাতে একগুচ্ছ শব্দের তালিকা দেওয়া হয়েছে, যে শব্দগুলি লোকসভা এবং রাজ্যসভার অধিবেশন চলাকালীন উচ্চারণ করতে পারবেন না সাংসদরা। সেই তালিকায় রয়েছে জুমলাবাজি, স্নুপগেট, কোভিড স্প্রেডার, লজ্জাজনক, নির্যাতন, বিশ্বাসঘাতকতা, নাটক, দুর্নীতিগ্রস্ত, অযোগ্য, ভণ্ডামি, স্বৈরাচারী, শকুনি, নৈরাজ্যবাদী,খলিস্তানির মতো শব্দগুলি। এছাড়া বিনাশ পুরুষ, জয়চাঁদ, তানাশাহি, দাঙ্গা, দালাল, দাদাগিরি, খুন সে খেতি, দোহরা চরিত্র, চামচা, চামচাগিরি, কুম্ভীরাশ্রু, গদ্দার, গিরগিট, কালাদিন, কালা বাজারি, নিকম্মা, নৌটঙ্কি শব্দ প্রয়োগেও জারি হয়েছে নিষেধাজ্ঞা।
সবমিলিয়ে সংসদের সচিবালয়ের প্রকাশ করা পরপর দুটি বিজ্ঞপ্তি ঘিরে রাজনৈতিক তরজা চরমে উঠেছে। এই নিয়ে বিরোধীদের ক্ষোভের আঁচে সংসদের বাদল অধিবেশন উত্তপ্ত হতে চলেছে বলে মনে করা হচ্ছে।