Date : 2022-11-29

সারাদেশ জুড়ে বন্ধ থাকতে চলেছে ইটভাটা ; ক্ষতির মুখে ইমারতি ব্যবসা

শাহিনা ইয়াসমিন, সাংবাদিক: বিশাল ক্ষতির সামনাসামনি দাঁড়িয়ে রয়েছে ইমারতী ব্যবসা। দেশ জুড়ে ২০২২-২৩ সালে অর্থাৎ  আগামী মোরশুমে বন্ধ থাকতে চলেছে ইটভাটা। এমনটাই এক সাংবাদিক সম্মেলনে জানালেন বেঙ্গল ব্রিক ফিল্ড অনার্স অ্যাসোসিয়েশন। অল ইন্ডিয়া ব্রিক অ্যান্ড টাইল ম্যানুফ্যাকচারস ফেডারেশনের ডাকে এই ধর্মঘট।

তারা বলেন, ইট বিক্রির ক্ষেত্রে জিএসটি বেড়ে গেছে প্রায় ২৪০ থেকে ৬০০ শতাংশ।কয়লার দাম বেড়েছে প্রায় ৩৫০ শতাংশ।অতিরিক্ত ১২ শতাংশ জিএসটি চাপানো হয়েছে ওয়ার্ক কন্ট্রাক্ট এর উপর। Pollution control এর বিভিন্ন আদেশনামা এবং কেন্দ্রীয় সরকার দ্বারা ফ্লাই অ্যাশ ব্রিক বা এসিসি ব্লক ব্যবহার করার জন্য প্রচার করা।সহ আরো অন্যান্য বিষয় নিয়ে চলতি বছরের অক্টোবর মাস থেকে বন্ধ থাকতে চলেছে সারা দেশের ইটভাটা।

বেঙ্গল ব্রিক ফিল্ড ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, প্রত্যেক বছর দেশের বিভিন্ন রকম উন্নয়নমূলক কাজে ৮০% ইটের চাহিদা পূর্ণ করে এই সেক্টর। সারাদেশের প্রায় এক লক্ষেরও বেশি ইটভাটা ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে যেখান থেকে প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষভাবে প্রায় তিন থেকে চার কোটি মানুষ অর্থ উপার্জন করেন।তারা আরো বলেন মাটির তৈরি এই ইটের ইন্ডাস্ট্রি থার্মাল পাওয়ার প্লান্টের পরেই দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে কয়লা ব্যবহারের ক্ষেত্রে। কিন্তু কয়লার দাম অত্যাধিক পরিমাণে বেড়ে যাওয়ার ফলে এই ব্যবসা চালানো মুশকিল হচ্ছে তাদের পক্ষে। প্রায় আড়াইশো মিলিয়ন ইট সারাবছর দেশের বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কাজে ব্যবহৃত হয়। সমীক্ষা অনুযায়ী 35 মিলিয়ন টন কয়লা বছরে এই সেক্টরের কাজে লাগে। তারা দাবি করছেন কেন্দ্রীয় সরকারের নীতি অনুযায়ী রেড ব্রিক কোন ভাবেই সরকারি কোনো কনস্ট্রাকশন কাজে ব্যবহার করা যাবে না যেখানে কুড়ি হাজার বর্গমিটার এর বেশি কাজ হচ্ছে। এর ফলে এই শিল্পের ক্ষেত্রে তার শিরদাঁড়া ভেঙে দেওয়ার কথাও তারা উল্লেখ করেন। আগামী মরশুমে ইটভাটা বন্ধের ফলে ইমারতী শিল্পে যে ভালো রকমের সমস্যা আসতে চলেছে সে কথা তারা মেনে নিচ্ছেন কিন্তু তবুও তারা এই আন্দোলনে যাওয়ার পথে এগোচ্ছেন। আগামী দিনে আরো বড় রকমের আন্দোলনের কথা তারা ঘোষণা করেন। এই সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বেঙ্গল ব্রিক ফিল্ড অনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি যোগেশ আগারওয়াল, সাধারণ সম্পাদক দিলীপ কুমার ঘোষ, অল ইন্ডিয়া AIBTMF র পক্ষ থেকে অশোক কুমার তিওয়ারি প্রমূখ।