Date : 2022-08-10

পাখির চোখ পঞ্চায়েত। ছয় মাসেই বকেয়া কাজ শেষের নির্দেশ মুখ্যসচিবের।

সঞ্জু সুর, সাংবাদিক:-পঞ্চায়েত ভোট কি এগিয়ে আনা হবে ? প্রশাসনের কর্মব্যস্ততায় অবশ্য তেমন‌ই ইঙ্গিত মিলছে। জেলা সফরে মুখ্যমন্ত্রীর পরিষ্কার মন্তব্য ও সোমবার পঞ্চায়েতের বকেয়া কাজ শেষ করা নিয়ে মুখ্যসচিবের নির্দেশ এবং ছয় মাস সময় বেঁধে দেওয়া সেই সম্ভাবনাকেই আরো পরিপুষ্ট করছে।

সামনেই পঞ্চায়েত নির্বাচন। যা একপ্রকার মিনি বিধানসভা নির্বাচনের সামিল। ২০২৪ এর লোকসভা নির্বাচনের আগে রাজ্যের গ্রামাঞ্চলের ভোটারদের মনের খোঁজের হদিস পাওয়ার ভোট ও বটে। ফলে এই ভোটে কোনোরকম গাছাড়া ভাব দেখানোর প্রশ্ন‌ই ওঠে না। বিশেষ করে শাসকদলের কাছে তো নয়ই। তাই তো মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর গত চারটি জেলা সফরে নিয়ম করে দলের কর্মিদের সতর্ক করে দিচ্ছেন। এমনকি জেলা প্রশাসনিক বৈঠকেও তিনি ইঙ্গিত দিয়ে হুঁশিয়ার করে দিয়েছেন পঞ্চায়েতের সঙ্গে জড়িত জনপ্রতিনিধিদের। তিনি বলেছেন, “যা কাজ করার তাড়াতাড়ি করে নিন। এরপর বর্ষা এসে গেলে আর কাজ করা যাবে না। আর আমি যেকোনো মুহূর্তে পঞ্চায়েত নির্বাচন ঘোষণা করে দিতে পারি।” মুখ্যমন্ত্রী যখন একদিকে তাঁর দলের জনপ্রতিনিধি থেকে শুরু করে দলীয় নেতা কর্মিদের সতর্ক করছেন, তখন বসে নেই প্রশাসন‌ও।

নবান্ন সূত্রে খবর, সোমবার মুখ্যসচিবের পক্ষ থেকে সব জেলার জেলাশাসক সহ পঞ্চায়েতের কাজের সঙ্গে জড়িত সব দফতরের আধিকারিকদের কাছে বার্তা গিয়েছে পঞ্চায়েত কেন্দ্রিক বকেয়া সব কাজ আগামি ছয় মাসের মধ্যে শেষ করতে হবে। যেসব কাজের ঘোষণা করা হয়েছে, শিলান্যাস করা হয়েছে, অর্থ বরাদ্দ করা হয়েছে, কাজ শুরু হয়েছে, এবং একেবারেই গ্রামাঞ্চলের উপভোক্তাদের প্রয়োজনীয় প্রকল্প বাস্তবায়নে আশু পদক্ষেপ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলেও জানা যাচ্ছে। প্রথমত মুখ্যমন্ত্রীর ইঙ্গিত ও তারপর মুখ্যসচিবের এই নির্দেশ। স্বাভাবিকভাবেই নবান্নের আধিকারিকদের অনেকের মত পুজোর পরেই সম্ভবত পঞ্চায়েত ভোটের দিনক্ষণ ঘোষণা করা হতে পারে। সেক্ষেত্রে ডিসেম্বর-জানুয়ারি মাসের মধ্যেই পঞ্চায়েত ভোট হয়ে যাবে।