Date : 2022-08-10

খুঁটিপুজো দিয়ে শুরু হল ২১ জুলাই এর মঞ্চ তৈরীর কাজ

নাজিয়া রহমান, সাংবাদিক : বুধবার খুঁটিপুজো দিয়ে শুরু হল ২১জুলাই এর মঞ্চ তৈরীর কাজ। গত দু বছর অতিমারি আবহে ভার্চ্যুয়ালি হয়েছিল অমর শহিদ স্মরণ। ২০২১ সালে তৃতীয় বার ক্ষমতায় আসে তৃণমূল কংগ্রেস। গতবার ভার্চ্যুয়ালি এই দিনটি প্রথম জাতীয় স্তরে পালন করে রাজ্যের শাসকদল। সেবার প্রথমবার সর্বভারতীয় স্তরে বার্তা দেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ভার্চ্যুয়ালি তৃণমূল নেত্রীর বক্তৃতা সম্প্রচারিত হয় দিল্লি, উত্তরপ্রদেশ, গুজরাত-সহ একাধিক রাজ্যে। প্রতি বছর দিনটি শহিদ দিবস হিসাবে পালনের পাশাপাশি দলের আগামীদিনের নীতি নির্ধারণ ঘোষণাও করা হয়। তৃণমূল নেত্রীর সেই বার্তা শুনতে ধর্মতলার ভিক্টোরিয়া হাউসের সামনে জড়ো হন অসংখ্য কর্মী সমর্থকেরা।

১৯৯৩-র ২১ জুলাই পুলিশের গুলিতে ১৩ জন কংগ্রেস কর্মীর মৃত্যু হয়েছিল। তখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ছিলেন রাজ্য যুব কংগ্রেসের নেত্রী। যুব কংগ্রেসের ডাকে মহাকরণ অভিযানে সামিল হন যুব কংগ্রেসের কর্মী সমর্থকেরা। যে অভিযানে পুলিশের গুলিতে ১৩জন কংগ্রেস কর্মীদের মৃত্যু হয়। গুরুতর আহত হন তৎকালীন রাজ্য যুব কংগ্রেসের নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই ঘটনার পর থেকেই ১৩জন শহিদের স্মরণে ২১জুলাই দিনটি শহিদ দিবস হিসেবে পালিত হয়।

 এই ঘটনার বছর দুয়েক আগে ১৯৯১-এ  বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ক্ষমতায় প্রত্যাবর্তন ঘটেছিল বামফ্রন্ট সরকারের। তখন রাজ্যে প্রধান বিরোধী দল ছিল কংগ্রেস। বিরোধী দল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে সিপিএমের বিরুদ্ধে ১৯৯১ এর ভোটে রিগিংয়ের অভিযোগ তোলা হয়। রিগিং এর প্রতিবাদ জানিয়ে স্বচ্ছ নির্বাচনের দাবিতে কংগ্রেসের পক্ষ থেকে ভোটারদের সচিত্র পরিচয় পত্রের দাবি করা হয়। এই সচিত্র পরিচয় পত্রের দাবিতে মহাকরণ অভিযানের ডাক দিয়েছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন যুব কংগ্রেস।  এই অভিযানের সময়ই পুলিশের গুলিতে ১৩ জন কংগ্রেস কর্মীর মৃত্যু হয়েছিল। 

তৃণমূল কংগ্রেস গঠনের পর থেকেই ভিক্টোরিয়া হাউসের সামনে শহিদ দিবস পালিত হয়ে আসছে। এবার করোনার সংক্রমণ নিম্নমুখী হতেই ছন্দে ফিরতে শুরু করেছে জনজীবন। তাই এবার আগের মতোই ভিক্টোরিয়া হউসের সামনে হবে শহিদ দিবস পালন। বুধবার থেকেই শুরু হয়ে গেল তার প্রস্তুতি। তৃণমূলের মহাসচিব সহ একাধিক তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা -নেত্রীদের উপস্থিতিতে খুঁটি পুজো হয়।