Date : 2022-08-10

পুরসভার উদ্যোগে শুরু ক্যান্সার চিহ্নিতকরণ শিবির। সহযোগিতায় আইএম‌এ

সঞ্জু সুর, সাংবাদিক ঃ ক্যান্সার একটি অত্যন্ত ব্যয়বহুল চিকিৎসা। তাও সেই চিকিৎসায় সকলেই সুস্থ হবেন এমন কোনো নিশ্চয়তা নেই। তবে প্রাথমিক স্তরে ক্যান্সার চিহ্নিত করা গেলে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই নিরাময় সম্ভব। সেই চিহ্নিতকরণের কাজটাই সঠিকভাবে যাতে করা যায় তারজন্য এবার কলকাতায় শুরু করা হলো ক্যাম্প। শনিবার যার আনুষ্ঠানিক সূচনা করলেন কলকাতার মেয়র তথা রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। উপস্থিত ছিলেন ইন্ডিয়ান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের ডক্টর শান্তনু সেন। ছিলেন কলকাতা পৌরসভার স্বাস্থ্য বিভাগের আধিকারিকেরা ও দুটি বেসরকারি হাসপাতালের চিকিৎসকেরাও।

ক্যান্সার নামক এই মারাত্মক রোগের ক্ষেত্রে দেখা যায় যখন কোনো রোগীর ক্যান্সার ধরা পরে ততক্ষণ অনেক দেরি হয়ে গেছে। চিকিৎসকরা বলেন প্রাথমিক স্তরে ক্যান্সার চিহ্নিত করা গেলে তা নিরাময় করা সম্ভব। অন্তত অধিকাংশ ক্ষেত্রেই তা সম্ভব। একথা মাথায় রেখেই কলকাতা পুরসভার স্বাস্থ্য বিভাগের উদ্যোগে ও ইন্ডিয়ান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের সহযোগিতায় শনিবার কলকাতা পুরসভার ৮২ নম্বর ওয়ার্ডের মেয়র্স ক্লিনিকে শুরু করা হলো ক্যান্সার চিহ্নিতকরণ শিবির। শিবিরের উদ্বোধন করে মেয়র ফিরহাদ হাকিম বলেন, “ক্যান্সার হলো মানে আমি মারা গেলাম, আমার পরিবারটাও শেষ হয়ে গেল।

এটাই আমাদের ভবিতব্য ছিল, আমরা এটাকেই স্বাভাবিক বলে মেনে নিতাম। কিন্তু যদি প্রথমেই আমরা ক্যান্সার ডিটেক্ট করতে পারি তাহলে হয়তো আমরা অনেককেই বাঁচাতে পারবো। তাই আইএম‌এ-র ডক্টর শান্তনু সেন যখন আমাদের এই ক্যাম্পের বিষয়ে প্রস্তাব দেন তখন আমরা পুরসভার পক্ষ থেকে তা লুফে নিই।” মেয়র আর‌ও জানান, “আজ এই পরিষেবা মেয়র্স ক্লিনিক দিয়ে শুরু হল। এখন থেকে কলকাতা পুরসভা এলাকার প্রতিটি ওয়ার্ড কে কেন্দ্র করেই এই ধরনের ক্যাম্প করা হবে।” চিকিৎসক তথা তৃণমূল সাংসদ শান্তনু সেন জানান, “ক্যান্সার যখন বাড়ছে তখন কেন্দ্রের এই বিষয়ে কোন হেলদোল নেই। বরং ক্যান্সারের চিকিৎসায় ব্যবহৃত ওষুধের দাম বেড়েই চলেছে।

এদিকে আমাদের রাজ্যের মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী স্বাস্থ্যসাথী কার্ডের মাধ্যমে সব ধরনের রোগের চিকিৎসার পাশাপাশি ক্যান্সারের ক্ষেত্রেও বিনামূল্যে চিকিৎসার ব্যবস্থা করছেন।” এই বিষয়ে ফিরহাদ হাকিম বলেন, “আগে চিকিৎসা বিষয়টি সাধারণ মানুষের ধরাছোঁয়ার বাইরে ছিল এখন আমাদের মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী স্বাস্থ্য সাথী কার্ড করে দিয়ে এই ব্যবস্থাটা আমাদের সবার জন্য করে দিয়েছেন। মুখ্যমন্ত্রীর লক্ষ্য ‘হেলথ ফর অল।’ যদিও কয়েকটি হাসপাতাল স্বাস্থ্য সাথী কার্ড এর চিকিৎসা করাতে গড়িমওসি করছে। আমাদের নজরে আসলেই ব্যবস্থা নিচ্ছি।” ক্যান্সার চিকিৎসার সঙ্গে যুক্ত চিকিৎসকদের বক্তব্য সাধারণভাবে সারভাইকাল ক্যান্সার বা ব্রেস্ট ক্যান্সারের ক্ষেত্রে সাধারণ মানুষের চিকিৎসা করানোর বিষয়ে একটা অনীহা থাকে প্রাথমিকভাবে। বিশেষ করে মহিলাদের এই অনীহা বেশি দেখা যায়। এই বিষয়ে ফিরহাদ হাকিম বলেন, “আমাদের সমাজে নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবারের মহিলারা বরাবরই উপেক্ষিত থাকেন। আমার মনে হয় এই ক্যাম্পগুলোর মাধ্যমে গরিব মানুষ খুব উপকৃত হবেন।”

শনিবার যে শিবির শুরু করা হলো, আগামী দিনে কলকাতা পুরসভা এলাকার বিভিন্ন জায়গায় সেই একই ধরনের শিবির করা হবে। কোথায় কবে এই ধরনের শিবির হবে তার তালিকা নিম্নরূপ।
০৪/০৭/২২ তারিখে ২ নম্বর বরো-র ১১ নম্বর ওয়ার্ডে।
০৫/০৭/২২ তারিখে ১০ নম্বর বরো-র ৮১ নম্বর ওয়ার্ডে।
০৮/০৭/২২ তারিখে ১৪ নম্বর বরো-র ১২৩ নম্বর ওয়ার্ডে।
১২/০৭/২২ তারিখে ৩ নম্বর বরো-র ৩১ নম্বর ওয়ার্ডে।
২০/০৭/২২ তারিখে ১ নম্বর বরো-র ৫ নম্বর ওয়ার্ডে।
২৭/০৭/২২ তারিখে ১২ নম্বর বরো-র ১০৮ নম্বর ওয়ার্ডে।
৩০/০৭/২২ তারিখে ৮ নম্বর বরো-র ৯০ নম্বর ওয়ার্ডে।
পরবর্তীকালে এই শিবির আরো বাড়ানো হবে বলেই পুরসভা সূত্রে খবর।