Date : 2022-11-29

কথা রাখেনি সরকার। মন্ত্রীর উপস্থিতিতে বললেন এম‌আর ডিলারের সম্পাদক

সঞ্জু সুর, সাংবাদিক : সময়, শনিবারের বারবেলা। স্থান, ক্রেতা সুরক্ষা ভবন এর অডিটোরিয়াম। উপলক্ষ্য, খাদ্য সাথী নিয়ে সেমিনার। মঞ্চে তখন রাজ্যের মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। মন্ত্রীর উপস্থিতিতে ওয়েস্ট বেঙ্গল এম আর ডিলার অ্যাসোসিয়েশন এর সম্পাদক আবদুল মালেক অভিযোগ করেন সরকার তাদের যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলো সেই প্রতিশ্রুতি পূরণ করা হয় নি। মন্ত্রী অবশ্য তাদের আশ্বস্ত করেন।

ওয়েস্ট বেঙ্গল এম আর ডিলার অ্যাসোসিয়েশন বরাবরই সরকারের পাশে থেকেছে। সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পের কাজে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে, তা সে ‘খাদ্য সাথী’ হোক বা ‘দুয়ারে রেশন’ প্রকল্প। এমনটাই দাবি করলেন ওয়েস্ট বেঙ্গল এম আর ডিলার অ্যাসোসিয়েশন এর সম্পাদক আবদুল মালেক, কিন্তু তারপরেই তিনি অভিযোগের সুরে বলেন, “আমি ক্যামেরার সামনেই বলছি সরকার আমাদের যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলো সেটা আমরা সম্পূর্ণ পাচ্ছি না। মাননীয় মন্ত্রী থেকে শুরু করে বিভাগীয় সচিব, সবাইকে বলেও কোনো সুরাহা হয় নি।” ডিলার অ্যাসোসিয়েশন এর সম্পাদকের বক্তব্যের পরেই প্রাক্তণ খাদ্য মন্ত্রী তথা বর্তমান বনমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন, “কেন্দ্র সরকার আমাদের বকেয়া ৯৭ হাজার কোটি টাকা দিচ্ছে না।

কেন্দ্র থেকে আমাদের যে টাকা পাওনা, সেটা আমরা পাচ্ছি না। ফলে আমাদের অর্থের সমস্যা রয়েছে। তবে আমি নিশ্চিত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে আমরা এই সমস্যা থেকে বের হব, তখন নিশ্চয়ই আপনাদের যে কিছুটা সমস্যা রয়েছে সেটা আমরা মেটাতে পারবো। মুখ্যমন্ত্রীর প্রতি ভরসা রাখুন।”

ডিলার অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যদের তিনি মনে করিয়ে দেন, মুখ্যমন্ত্রী আপনাদের সবাইকে নিজের পরিবারের সদস্য মনে করেন। মন্ত্রী বলেন, “আপনাদের নিশ্চয়ই মনে আছে যখন করোনার টিকা দেওয়া হচ্ছিল তখন আপনারা অল্প কিছু টিকার ব্যবস্থা করতে বলেছিলেন, মুখ্যমন্ত্রী কিন্তু সেই সময় আপনাদের জন্য দশ হাজার টিকার ব্যবস্থা করে দিয়েছিলেন। তাই বলছি মুখ্যমন্ত্রীর প্রতি আস্থা রাখুন।”
এদিন এম‌আর ডিলার অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে মাননীয় মন্ত্রীর হাত দিয়ে কিছু কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা‌ও দেওয়া হয়।