Date : 2022-09-27

দামামা বেজে গেল ডুরান্ড কাপের

16ই অগাস্ট থেকে শুরু ডুরান্ড কাপ। তার আগে এদিন সরকারি সাংবাদিক বৈঠক হল সেনা বাহিনি এবং রাজ্য ক্রীড়া দফতরের তরফে। এবারের ডুরান্ড কাপে হবে মোট 47টা ম্যাচ। এর মধ্যে 27টি ম্যাচই হবে কলকাতায়। যার মধ্যে থাকছে তিন প্রধানের ম্যাচই। কলকাতার যুবভারতীত স্টেডিয়াম এবং কিশোর ভারতী ক্রীড়াঙ্গনে হবে এবারের ডুরান্ড কাপের ম্যাচ। এছাড়াও ইমফল এবং গুয়াহাটিতেও হবে বেশ কয়েকটি ম্যাচ। তিন প্রধান খেলায় এমনিতেই জৌলুশ বেড়েছে এই প্রতিযোগিতার। ইতিমধ্যেই 28 তারিখের ডার্বি ম্যাচের পারদ তরতর করে চড়ছে। অনলাইন টিকিট ইতিমধ্যেই শেষ। অফলাইনও দ্রুত শেষ হয়ে যাবে, এই আশঙ্কা রয়েছে। তাই আপাতত টিকিট ছাড়া হচ্ছে না। ম্যাচের দিন পাঁচেক আগে থেকে ছাড়া হবে ডার্বির অফলাইন টিকিট। আইএসএল, আইলিগের দলগুলি খেলায় ঐতিহ্যশালি এই প্রতিযোগিতায় খেলার মান আরও অনেকটাই বাড়বে বলে আশা রখছেন আয়োজকরা। প্রতিদ্বন্দীতাও অনেকটাই বাড়বে বলে আশায় আয়োজকরা। এদিন সাংবাদিক সম্মেনে উপস্থিত ছিলেন ডুরান্ড আয়োজক কমিটির চেয়ারম্যান লেফটানান্ট জেনারেল কেকে জেপসাল, রাজ্যের ক্রীড়ামন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস। 18 সেপ্টেম্বর ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে কলকাতার সল্টলেক স্টেডিয়ামে। উদ্বোধনী ম্যাচের জন্য আমন্ত্রন জানানো হচ্ছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। ফাইনাল ম্যাচে আমন্ত্রণ জানানো হবে দেশের রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মূর্মূকে। 2025 পর্যন্ত বাংলায় ডুরান্ড হওয়ার কথা থাকায় এই প্রতিযোগিতার দ্বারা বাংলার ফুটবলের উন্নতি করাই মুল লক্ষ্য রাজ্য ক্রীড়া দফতরের। চলতি বছরে দুটি স্টেডিয়ামে ম্যাচ হলেও আগামি বছর থেকে রাজ্যের আর কোন কোনও নতুন মাঠে ম্যাচ দেওয়া যায় তা নিয়েও ভাবতে চলেছে আয়োজকরা। সেক্ষেত্রে তিন প্রধানের ঘরের মাঠও বিবেচনার মধ্যে থাকতে পারে।