Date : 2022-09-27

হাজারো রূপে গোলাপজল

সঞ্জনা লাহিড়ী, সাংবাদিক:- সৌন্দর্য ও গোলাপ, একে অপরের পরিপূরক শব্দ। গরমের ক্লান্তি থেকে নিমেষে তরতাজা হয়ে উঠতে গোলাপজলের শীতলতা ও হালকা মিষ্টি সুগন্ধই যথেষ্ট। ত্বকের যত্নে গোলাপজলের ব্যবহার প্রাচীনকাল থেকে হয়ে আসছে। ফেস মাস্কের উপাদান হিসেবে, টোনার বা ফেস মিস্ট হিসেবে গোলাপজল ত্বককে স্নিগ্ধ, আর্দ্র আর সতেজ রাখে। এছাড়াও টেনশন কাটিয়ে মন হালকা করতে জুড়ি নেই গোলাপজলের সুবাসের। দেখে নিন আপনার রূপচর্চার কাজে কী কী ভাবে ব্যবহার করতে পারেন গোলাপজল।
১. মাস্ক লাগানোর আগে- মুখে ঘরোয়া ফেসপ্যাক লাগানোর আগে তুলোয় করে গোলাপজল নিয়ে সারা মুখে লাগিয়ে নিন। ত্বক আগে থেকে পরিষ্কার করে নেবেন। মুখে গোলাপজল লাগানোর পরে ফেসপ্যাক লাগান। তাতে ফেসপ্যাকের কার্যকারিতা বাড়বে, গোলাপজলও ত্বকের গভীরে প্রবেশ করে ত্বক আর্দ্র রাখবে।


২. টোনার হিসেবে গোলাপজল- রাসায়নিক উপাদানে ভরা টোনারের চেয়ে গোলাপজল অনেক বেশি লোভনীয় অপশন। গোলাপজলের অ্যান্টিব্যাক্টেরিয়াল গুণ ত্বক স্নিগ্ধ করে, ত্বকের জ্বালা- পোড়া, র‍্যাশ কমায়। তুলোয় করে নিয়ে মুখে বুলিয়ে নিন, ত্বক ঠান্ডা হয়ে যাবে নিমেষে।
৩. কাটাছেঁড়া, ৱ্যাশ কমাতে- গোলাপজলের মধ্যে হালকা অ্যাস্ট্রিনজেন্ট ও অ্যান্টিব্যাক্টেরিয়াল গুণ রয়েছে। তাই হাত-পা শেভ করতে গিয়ে কেটে গেলে বা কোথাও দানা দানা র‍্যাশ বেরোলে চোখ বন্ধ করে ভরসা রাখুন গোলাপজলের উপরে। তুলোয় করে লাগিয়ে নিন জায়গাটায়। সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে এক নিমেষে।
৪. শুষ্ক ত্বকের সমস্যায়- আপনার ত্বক কি খুব রুক্ষ আর শুকনো? তা হলে প্রতিবার ময়শ্চারাইজার মাখার আগে আপনার দরকার গোলাপজল। স্প্রে বোতলে গোলাপজল ভরে রাখুন। স্নানের পর আগে সারা শরীরে স্প্রে করে নিন, তারপর সঙ্গে সঙ্গে ময়শ্চারাইজার মেখে ফেলুন। গোলাপজল ময়শ্চারাইজারের আর্দ্রতা ত্বকের গভীরে ঢুকতে সাহায্য করে।


৫. পিএইচ ব্যালান্স- আপনার ত্বক কি ইদানীং খুব অদ্ভুত আচরণ করছে? মানে আজ খুব তেলতেলে লাগছে, তো কালই ভীষণ টান ধরছে মুখে? এমন হলে এর কারণ হয়তো আপনার পিএইচ ভারসাম্যে কিছু গোলমাল হচ্ছে। তবে ভাবনা নেই, এ ক্ষেত্রেও আপনাকে সাহায্য করবে গোলাপজল। মুখের পিএইচ ব্যালান্স ফিরিয়ে এনে ত্বক সুস্থ করে তোলার ক্ষমতা রয়েছে গোলাপজলের। সাধারণ জলের বদলে কয়েকবার মুখে গোলাপজলের ঝাপটা দিন, ত্বক দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠবে।
৬. স্নানের সময়- এই গরমের দিনে একটা স্বস্তির স্নান চাইছেন? এসেনশিয়াল অয়েলের বদলে স্নানের জলে মিশিয়ে দিন গোলাপজল। শরীর, মন দুই-ই তরতাজা হয়ে উঠবে, ভিতরে ভিতরে এক আশ্চর্য শান্তি পাবেন। বাড়তি পাওনা হিসেবে গোলাপের মনকাড়া সুগন্ধ তো রইলই!