Date : 2022-09-27

পুজোর আগে ভুঁড়ি কমাতে চান। এবং ওজন কমাতে চান। তাহলে কোনও শরীরচর্চা বা ডায়েট করে নয়। শুধু ঘরোয়া পানীয় জলেই অনেকটা ভুঁড়ি কমিয়ে ফেলতে পারেন।

শাহিনা ইয়াসমিন সাংবাদিক: উৎসবরে মরশুম প্রায় শুরু হয়েই গিয়েছে। এই সময়ে সকলেই চান, একটু তাজা এবং ফিট থাকতে। অনেকের ক্ষেত্রেই এই ইচ্ছায় বাধা হয়ে দাঁড়ায় পেটের মেদ। বাড়িতে বসেই পেটের মেদ বা ভুঁড়ি কমান যাবে । এবং সেটিও কনও ব্যায়াম বা ডায়েট না করেই। কয়েকটি ঘরোয়া পানীয় জল নিয়মিত খেলেই কমতে পারে ওজন। দেখে নিন সেই পানীয় জল কী কী?
১. অ্যালো ভেরা আর আমলকির রস: এটি শরীর থেকে টক্সিন বার করে দেয়। এবং ওজন কমায়। এক গ্লাস জলে এক চামচ অ্যালো ভেরার রস এবং এক চামচ আমলকির রস মেশান। খালি পেটে এই জলটি সকালে পান করুন। শরীর ভালো থাকবে। ভুঁড়িও কমবে।


২. গোটা ধনে জল: রাতে এক চামচ গোটা ধনে এক গ্লাস জলে ভিজিয়ে রাখুন। সকালে ধনে ছেঁকে সেই জল খালি পেটে পান করুন। নিয়মিত খেলে ওজন কমবে।


৩. জিরের জল: এই পানীয়ও শরীর থেকে টক্সিন বার করে দিয়ে ওজন কমাতে সাহায্য করে। রোজ রাতে ১ চামচ জিরে এক গ্লাস জলে ভিজিয়ে রাখুন। সকালে জিরে ছেঁকে নিয়ে ওই জল খান। ওজন কমবে।


৪. দারুচিনি জল: এটিও একই রকমভাবে ভুঁড়ি কমাতে সাহায্য করে। এক গ্লাসে জলে দারুচিনি দিয়ে সেটি ফুটিয়ে নিন। তার পরে সেই জল পান করুন। ওজন কমবে।


৫. হলুদ দুধ: দুধে হলুদ মিশিয়ে খেলে মেটাবলিজম বা বিপাক হার অনেকটা বেড়ে যায়। ফলে এটি নিয়মিত খেলে ভুঁড়ি কমে, ওজনও কমে।


৬. গ্রিন টি: এই চায়ের মধ্যেও এমন কিছু গুণ রয়েছে, যা মেটাবলিজম বাড়াতে সাহায্য করে। ফলে কমে ওজন এবং পেটের মেদ।


৭. গরম জল: রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে এমনি গরম জল খান। তাতেও কমবে পেটের মেদ।