Date : 2022-09-27

প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের গ্রিভেন্স সেলে আস্তা রাখছেন চাকুরিপ্রার্থীরা। সেলে পড়ছে অভিযোগ।

নাজিয়া রহমান, সাংবাদিক:- টেট বা অন্য যে কোনও অ্যাকাডেমিক অভিযোগ জানানো যাবে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের গ্রিভেন্স সেলে। পর্ষদের নতুন সভাপতি গৌতম পাল দায়িত্ব নেওয়ার দিনই ঘোষণা করেন গ্রিভেন্স সেল করার। সেই ঘোষণা বাস্তবে কার্যকর করল পর্ষদ।
প্রাথমিকের টেট নিয়ে উঠেছে অভিযোগ। শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে উঠেছে দূর্নীতির অভিযোগ। যা নিয়ে আন্দোলনে নেমেছেন চাকুরিপ্রার্থীরা। পর্ষদ কাজে স্বচ্ছতা ও গতি আনতে অভিযোগকারীদের অভিযোগ জানতে তৈরি করা হয়েছে গ্রিভেন্স সেল।
২০১৪ ও ২০১৭ সালের টেট, প্রাথমিকের শিক্ষক নিয়োগ, শিক্ষক বদলি, প্রাথমিক স্কুলগুলো কে কেন্দ্র করে বিভিন্ন ধরনের অ্যাকাডেমিক ইস্যু,বিভিন্ন প্রশাসনিক ইস্যু ও অন্যান্য যে কোনো ধরনের অভিযোগ জানানো যাবে এই গ্রিভেন্স সেলে। পর্ষদ সূত্রে জানা গেছে এখনও পর্যন্ত যত অভিযোগ জমা পড়েছে তার মধ্যেই বেশিরভাগ টেট ও নিয়োগ সংক্রান্ত অভিযোগ। তবে গ্রিভেন্স সেলের উপর মানুষ ভরসা রাখছে বলে মনে করছে পর্ষদ। এটি চালু হওয়ার পর যে হারে অভিযোগ জমা পড়ছে তাকে ইতিবাচক হিসাবেই দেখছেন পর্ষদের আধিকারিকরা। প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের বিরুদ্ধে যে ভাবে অভিযোগ উঠেছে। তা নির্মূল করতে মরিয়া পর্ষদ। অতিদ্রুত যাতে মানুষের বিশ্বাস প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের উপর ফিরে আসুক সেই জন্য কাজে আরও বেশি গতি আনতে চায় পর্ষদ কর্তৃপক্ষ। গ্রিভেন্স সেল তার অন্যমত মাধ্যম হতে পারে বলেও মত তাদের।