Date : 2022-12-05

দীর্ঘজীবি হওয়ার অমৃত সুধা

সঞ্জনা লাহিড়ী, সাংবাদিক- লাল চা, দুধ চা বা সবুজ চায়ের কথা আমরা সবাই জানি। কিন্তু নীল রঙের চা রয়েছে, তা কি কেউ জানেন? এই চা এখন বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। যাঁরা চা খেতে ভালবাসেন বা যাঁদের চা থেকে উপকার পেতে গ্রিন টি খাওয়ার অভ্যাস আছে, তারা চাইলেই এখন অভ্যাস একটু পরিবর্তন করে নীল চা খাওয়া শুরু করতে পারেন। কারণ এই নীল চায়েই লুকিয়ে আছে দীর্ঘজীবি হওয়ার অমৃত সুধা। ভারত ও বাংলাদেশে খুব কম পরিসরে এই চা তৈরি হয়ে থাকে। সাধারণত অত্যাধুনিক পদ্ধতিতে বিশেষ ধরনের কচি চা পাতার কুঁড়ি ও অপরাজিতা ফুলের অংশ বিশেষ একসঙ্গে মিশিয়ে এই বিশেষ চা তৈরি করা হয়। নীল রঙের চায়ে রয়েছে অসংখ্য ভেষজ গুণ। হার্টের সুরক্ষায়, চর্বি কমাতে, মেদ ঝরাতে, ওজন নিয়ন্ত্রণে, শরীরে কোলাজেনের মাত্রা বাড়াতে, রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে এই চা বেশ কার্যকরী। একটি গবেষণায় দেখা গেছে মোটা হয়ে যাওয়ার কারণে যকৃতের যেসব সমস্যা দেখা দেয়, সেগুলো প্রতিরোধে নীল চা বেশ উপকারী। নীল চায়ে থিয়ানিন থাকায় নিয়মিত এ চা খেলে শরীরে মেটাবলিজম বৃদ্ধি পায়। দিনে অন্তত দুবার এই চা খেলে শরীরে হেপাটিক মেটাবলিজম বৃদ্ধি পায় ও কোলেস্টেরল কমে যায়।

এ ছাড়া হতাশা বা মানসিক অবসাদ, ডায়বেটিস, অ্যাজমা, ক্যানসার প্রতিরোধের পাশাপাশি স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি এবং লিভার সুরক্ষায় নিয়মিত ডায়েট লিস্টে রাখতে পারেন এই পানীয়কে।
যদি বাজারে নীল চা বা অপরাজিতার চা খুঁজে না পান, তবে বাড়িতেও এই চা তৈরি করে নিতে পারেন। কিভাবে বানাবেন- এর জন্য গ্যাসে একটি সসপ্যানে ৪ কাপ জল দিন। জল ফুটে উঠলে ২টি এলাচ, এক টুকরো আদা, ছোট আকারের ২টি দারুচিনি ও ৭টি অপরাজিতা ফুল ফুটন্ত জলে দিয়ে দিন। এক্ষেত্রে অবশ্য ফুলের নিচের সবুজ অংশ ফেলে দেবেন।
মৃদু আঁচে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে সাত মিনিট মতো ফুটিয়ে নিন। ব্যস, তৈরি হয়ে যাবে অপরাজিতার নীল চা। মধু মিশিয়ে এই চা পরিবেশন করতে পারেন। চায়ে লেবু মিশিয়ে নিলে এই চায়ের রং নীলের বদলে বেগুনি রঙ ধারণ করবে।