Date : 2022-12-05

মুখের ঘা থেকে মুক্তি ঘরোয়া উপায়ে

সঞ্জনা লাহিড়ী, সাংবাদিক: মুখের ভিতরে হওয়া আলসারে অনেকেই ভোগেন। বহু চেষ্টার পরেও এই অসুখ থেকে সহজে মুক্তি মেলে না। সেক্ষেত্রে ঘরোয়া উপায়ে নারকেল তেল, অ্যালোভেরা জেল ব্যবহারে মুখের ঘা কমতে পারে। মুখের আলসার যার হয় সেই শুধু জানে যে এই অসুখের যে কী অদ্ভুত কষ্ট। অন্যরা বুঝতে পারবে না। মুখে ঘা হলে খাওয়া যায় না। এমনকী খুব ব্যথা হয়। এবার অনেকেই মুখের ভিতরের আলসার থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য ঘরোয়া উপায় ব্যবহার করতে চায়।
এবার প্রশ্ন হল, কেন মুখে ঘা হয়! এর অনেক কারণ থাকতে পারে। তবে শরীরে ভিটামিনের অভাব হল এই অসুখের অন্যতম কারণ। দেখা গিয়েছে যে ভিটামিন বি- এর অভাবে মুখে ঘা হয়। এছাড়া অনেকের আবার অন্ত্রের সমস্যার কারণে মাউথ আলসার হয়ে থাকে। সতর্ক হয়ে যাওয়া খুবই জরুরি। কারণ মাউথ আলসারের যেমন কারণ, সেই বুঝে চিকিৎসা প্রয়োজন।


তবে চিকিৎসা শুরু করার আগে ঘরোয়া কয়েকটি ব্যবস্থা নিলে ভাল হয়। কারণ এই রোগ বারবার ফিরে আসে। সেক্ষেত্রে ঘরোয়া পদ্ধতি ব্যবহার করলে অনেক ক্ষেত্রে সমস্যা থেকে চিরতরে মুক্তি মিলতে পারে।
মুখের ঘায়ের ক্ষেত্রে জায়গাটা প্রথমে লাল হয়ে যায়। তারপর ঘায়ের ভিতরটা সাদা হয়। খুব ব্যথা হয়ে থাকে। এমনকী খাওয়া যায় না। এই সব সমস্যা থেকে ঘরোয়া উপায়ে মুক্তি পেতে কয়েকটি উপায় জানা যাক।

১. বরফ দিলে মাউথ আলসার কমে। ক্ষত স্থানে বরফ দিতে পারেন। দিনে ৪ বার মতো বরফ দিন। দেখবেন ব্যথা কমছে। বরফ দিলে সেই জায়গায় কমতে থাকে রক্ত চলাচল। ফলে ব্যথা কমে। এটা মাথায় রাখা হল জরুরি।
২. নারকেল তেল লাগাতে পারেন মাউথ আলসারে। নারকেল তেলের আয়ুর্বেদ গুণ থাকায় এর অনেক ব্যবহার রয়েছে। এক্ষেত্রে নারকেল তেল প্রদাহ জায়গায় লাগান। এই তেলে থাকা লাউরিক অ্যাসিড প্রদাহ দূর করতে পারে। তাই আলসারের সমস্যা কমে।
৩. মধু ব্যবহার করতে পারেন মাউথ আলসারে।
মধুতে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল গুণ রয়েছে। তাই মধু আপনি ব্যবহার করতেই পারেন। সেক্ষেত্রে খুব তাড়াতাড়ি ফল পাবেন। হাতে মধু নিয়ে তা আলতো করে সেই জায়াগায় লাগান। দেখবেন আলসার কমেছে।
৪. অ্যালোভেরা জেল খুব কার্যকরী মাউথ আলসারে। অ্যালোভেরা একটি দারুণ গাছ। এর সমস্ত কিছু আপনি ব্যবহার করতে পারবেন। অ্যালোভেরা জেল বাড়িতে তৈরি করে নিন। কারণ বাজার থেকে কেনা অ্যালোভেরা জেলে রাসায়নিক মেশানো থাকে। তার বদলে বাড়িতে তৈরি করা জেল আপনি মাউথ আলসারে লাগান। দেখবেন সমস্যা মিটেছে দ্রুত।