Date : 2022-12-03

ডেঙ্গি নিয়ে প্রচারে মেয়র

নাজিয়া রহমান, সাংবাদিক:- ডেঙ্গি নিয়ে ফের প্রচারে নামলেন মেয়র ফিরহাদ হাকিম। রাজ্যে উদ্বেগজনক ভাবে বাড়ছে ডেঙ্গি। যদিও সচেতনতা বৃদ্ধিতে স্বাস্থ্য দফতর ও পৌরসভা নানাবিধ প্রচার চালাচ্ছে। তবুও ডেঙ্গির হাত থেকে মিলছে না রেহাই। এবার ডেঙ্গি নিয়ে সচেতনতা বাড়াতে মানুষকে সজাগ করতে রাস্তায় নামলেন মেয়ার ফিরহাদ হাকিম। বৃহস্পতিবার পাটুলির ১০১ নম্বর ওয়ার্ডে সচেতনতামূলক র‍্যালির মাধ্যমে প্রচারে নামেন মেয়র ফিরহাদ হাকিম। ডেঙ্গির মশা যাতে কোথাও বৃদ্ধি হতে না পারে সেই বার্তায় দিলেন মেয়র। র‍্যালিতে হাঁটতে হাঁটতে তীক্ষ্ন নজরে চারপাশ পরিদর্শন করেন তিনি। কোথাও কোনও অপরিস্কার জায়গা নজরে আসলে তা পুরো আধিকারিক ও কাউন্সিলরকে পরিস্কার করানোর নির্দেশ দেন। ডাবের খোলা ডেঙ্গির ক্ষেত্রে এক বিপজ্জনক বলে জানান মেয়র। ডাবের খোলায় জল জমে থাকলে সেখানে ডেঙ্গির লার্ভা হতে পারে বলেই আশঙ্কা প্রকাশ করেন মেয়র। ডেঙ্গি মশার লার্ভা নষ্ট করে সমাজকে ডেঙ্গি নির্মূল করতে হবে। মানুষ সচেতন থাকলে তবেই ডেঙ্গির বিরুদ্ধে লড়াই সম্ভব। মানুষকে সচেতন করতেই এই ধরনের সামাজিক প্রচারের আয়োজন বলেই জানান মেয়র।

শুধুমাত্র কলকাতা নয় জেলায় জেলায় বাড়ছে ডেঙ্গি আক্রান্তের সংখ্যা। পুরসভার অধিবেশনে ডেঙ্গি নিয়ে বিক্ষোভ দেখান বিরোধীরা। এমনকি অধিবেশন ওয়াকআউট করেন বাম কংগ্রেস ও বিজিপি। হাসপাতালে হাসপাতালে ডেঙ্গি রোগীদের ভীড়। ইতিমধ্যেই নবান্নের তরফে ডেঙ্গি প্রতিরোধে ১৪ দফা নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। নির্দেশিকায় রাজ্যের প্রতিটি হাসপাতাল ও স্বাস্থ্যকেন্দ্রকে সেই গাইডলাইন মেনে চলার কথা উল্লেখ করা হয়েছে। গাইডলাইনে যেগুলি বলা হয়েছে, পুরোমাত্রায় চালু রাখতে হবে রাজ্যের সমস্ত ফিভার ক্লিনিক । হাসপাতালে ভর্তি হওয়া ডেঙ্গি রোগীদের জন্য ২৪ ঘণ্টার ল্যাব পরিষেবা থাকতে হবে। ডেঙ্গি সন্দেহে কোনও ব্যক্তির রক্তের নমুনা সংগ্রহের দিনেই যেন রিপোর্ট পাওয়া যায় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। এছাড়াও গাইডলাইনে উল্লেখ করা হয়েছে হাসপাতাল চত্বরের পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখতে হবে, প্রতিনিয়ত পরিষ্কারের ব্যবস্থা করত হবে ইত্যাদি।