Date : 2023-01-28

মেঝেতে বাবু হয়ে বসে খাবার খাওয়ার বিভিন্ন উপকারিতা আছে যা আপনার শরীর ও মনকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করবে।

শাহিনা ইয়াসমিন, সাংবাদিক: ছোটবেলা থেকেই আমাদের অভ্যাস করানো হয় মেঝেতে বসে খাওয়ার। আধুনিক যুগে অবশ্য মেঝেতে বসে খাওয়ার চল উঠে গেছে বলা যেতেই পারে। খুব কম বাড়িতে এই চল টা রয়েছে। তবে জেনে রাখুন মেঝেতে বসে খেলেই আপনি সুস্থ ও সবল থাকবেন। তার পিছনে কিছু কারণ ও উপকারিতা আছে। গবেষণায় দেখা গেছে টেবিল-চেয়ারে বসে খাবার খেলে পেট ভরে ঠিকই, কিন্তু শরীরের কোনও মঙ্গল হয় না। বরং নানারকম রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা আরও বেড়ে যায়। মেঝেতে বসে খাওয়ার স্বাস্থ্য উপকারিতা সম্পর্কে জানবো। যেমন মেঝেতে বসে খেলে শরীর শক্তপোক্ত হয়, হজম ক্ষমতার উন্নতি হয়, ওজন কমে, শরীরের অনেক ব্যথা কমে, হার্টে কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি পায়, শরীরে রক্ত চলাচলের উন্নতি হয়, স্ট্রেস কমে। এই উপকারিতা গুলো একটু বিস্তারিত বলা যাক।

• মাটিতে বসে খেলে একাধিক আসন করা হয়:- মাটিতে বসে খাওয়ার সময় আমরা নিজেদের অজান্তেই একাধিক আসন করে ফেলি যেমন- সুখাসন, সিদ্ধাসন করে ফেলি। ফলে মাটিতে বসে খাওয়ার সময় পেট তো ভরেই সেই সঙ্গে শরীর ও মস্তিষ্ক, উভয়ই ভিতর থেকে চাঙ্গা হয়ে ওঠে।

• শরীর শক্তপোক্ত হয়:- মাটিতে বসে খাওয়ার অভ্যাস করলে থাই, গোড়ালি এবং হাঁটুর কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। সেই সঙ্গে শিরদাঁড়া, পেশি, কাঁধ এবং বুকের ফ্লেক্সিবিলিটিও বাড়ে। ফলে শরীরে সচলতা বৃদ্ধি পায় অন্যদিকে নানারকম রোগও দূরে থাকে।

• হজম ক্ষমতার উন্নতি :- বাবু হয়ে বসে খেলে হজম ক্ষমতার উন্নতি হয়। তাই যাদের বদ হজমের সমস্যা রয়েছে বা যারা গ্যাসের সমস্যায় ভোগেন তাদের জন্যেও মাটিতে বসে খাওয়া উচিত। কারন বাবু হয়ে বসে খেলে আমরা কখনও খাওয়ার থালার দিকে ঝুঁকি আবার সোজা হয়ে বসি এটা করলে হজম সহায়ক ডায়জেস্টিভ জুস’র ক্ষরণ বেড়ে যায়। ফলে হজম প্রক্রিয়া খুব সুন্দরভাবে হতে থাকে।

• শরীরে ব্যথা কমে:- মাটিতে বসে খাওয়ার ফলে আমরা মূলত পদ্মাসনে বসে থাকি। এইভাবে বসার কারণে পিঠের, পেলভিসের এবং তল পেটের পেশীর কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। সেই সঙ্গে সারা শরীরের কর্মক্ষমতা এত মাত্রায় বৃদ্ধি পায় যে সব ধরনের যন্ত্রণা কমে যেতে সময় লাগে না।

• ওজন কমে:- টেবিল বসে খেলে কতোটা কি খাচ্ছি তার অনুমান ও অনুপাত আমরা করতে পারি না। ফলে পেট ভরে গেলেও আমরা খেতে থাকি। তাই মাটিতে বসে খাওয়ার সময় আমাদের ভেগাস নার্ভের কর্মক্ষমতা বেড়ে যায়। মাটিতে বসে খেলে পেটে চাপ পড়ে যে পেট ভরে গেছে এই খবরটা খুব সহজেই ব্রেনের কাছে সে পৌঁছে দেয় ভেগাস নার্ভ। ফলে অতিরিক্ত খাওয়ার ইচ্ছা চলে যায়। এমনটা যত হতে থাকে তত ওজন বৃদ্ধির আশঙ্কাও কমে।

• হার্টে কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি পায়:- হাঁটু মুড়ে বসে থাকাকালীন শরীরের উপরের অংশে রক্তের প্রবাহ বেড়ে যায়। ফলে হার্টে কর্মক্ষমতা বাড়তে শুরু করে। সেই সঙ্গে হ্রাস পায় কোনও ধরনের হার্টের রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কাও।
• সারা শরীরে রক্ত চলাচলের উন্নতি:- আমাদের শরীরকে সুস্থ রাখতে প্রতিটি অঙ্গে অক্সিজেন সমৃদ্ধ রক্ত পৌঁছে যাওয়াটা জরুরি। যত এইরকম হবে, তত রোগের প্রকোপ কমবে। সেই সঙ্গে শরীরও চাঙ্গা থাকবে। বাবু হয়ে বসে খেলে বা বসলে সারা শরীরে বিশুদ্ধ অক্সিজেন সমৃদ্ধ রক্তের চলাচল বেড়ে যায়।

• স্ট্রেসের মাত্রা কমে:- গবেষকরা বলছেন স্টাডি করে দেখা গেছে ঘণ্টার পর ঘণ্টা মাটিতে বসে থাকলে শরীর এবং মস্তিষ্কের অন্দরে বেশ কিছু পরিবর্তন হতে শুরু করে, যার প্রভাবে স্ট্রেস হরমোনের ক্ষরণ কমে যায়। ফলে মানসিক অবসাদ তো কমেই, সেই সঙ্গে স্ট্রেসর মাত্রাও কমতে শুরু করে।
তাই মেঝেতে বাবু হয়ে বসার কতো উপকারিতা আছে জানলে তো। এবার থেকে টেবিল চেয়ারে নয়। মেঝেতেই বসে খাওয়া উচিত আমাদের সকলের।