Date : 2023-02-02

মহিলা নিরাপত্তার ওপর জোর দিতেই প্যানিক বোতাম সিস্টেম।

শাহিনা ইয়াসমিন, সাংবাদিক:- সোমবার ভেহিকল লোকেশন ট্র্যাকিং ডিভাইস’ অর্থাৎ ভিএলটিডি’র উদ্বোধন করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একেবারে অত্যাধুনিক একটি প্রযুক্তি। যার মাধ্যমে সহজেই গাড়ির গতিবিধি জানা যাবে। কার্যত যাত্রী সুরক্ষার কথা মাথায় রেখেই পরিবহণ দফতর নয়া এই সিস্টেমের কথা জানায়। এই সিস্টেমের ফলে অপরাধ অনেকটাই কমবে বলেও মনে করা হচ্ছে। এছাড়াও এতে প্যানিক বোতাম থাকবে। এই প্রথমবার এই ধরনের যানবাহনে ডিভাইস স্থাপন বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে। রাজ্যে মহিলাদের নিরাপত্তা বাড়ানোর লক্ষেই এই প্যানিক বোতাম সিস্টেম। এমনটাই জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সমস্যায় পড়লে যে কোনো যাত্রী প্যানিক বাটনে চাপ দিতে পারেন যা পুলিশ কন্ট্রোল রুমের সাথে সংযুক্ত থাকবে। কোনো দুর্ঘটনা ঘটলে, সিস্টেমটি 8 সেকেন্ডের মধ্যে কন্ট্রোল রুমকে জানাবে। কন্ট্রোল রুম পালাক্রমে স্থানীয় থানায় খবর দেবে।তার মাধ্যমে পরিবহন দফতর ও কলকাতা পুলিশের সঙ্গে তৎক্ষণাৎ যোগাযোগ করা যাবে।

তবে এই পুরো বিষয় নিয়ে কি বলছেন বাস মালিক থেকে অ্যাপ ক্যাব চালক, যাত্রীরা। যাত্রী থেকে চালক সকলের মতামত নিতেই বেরিয়ে পড়েছিলাম কলকাতার রাস্তায়। অনেকেই এই ব্যবস্থাকে সাধুবাদ জানিয়েছেন। পাশাপাশি যেকোনো যানবাহনে এই অ্যাপ লাগানোর পরিকাঠামো থাকতে হবে। পরিকাঠামোর ওপর জোর দিয়েছেন জয়েন্ট কাউন্সিল অফ বাস সিন্ডিকেটজেনারেল সেক্রেটারি তপন বন্দোপাধ্যায়। বেঁধে দেওয়া হয়েছে চূড়ান্ত সময়সীমা।৩১ মার্চের মধ্যে বেসরকারি গাড়ির মালিকদের এই ডিভাইসটি নিজেদের গাড়িতে বসাতে হবে। ইতিমধ্যে এই বিষয়ে বিস্তারিত জানিয়ে পরিবহণ দফতর বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে। পরিবহনমন্ত্রী জানান মোট ১২ টি সংস্থা এই অ্যাপ পরিষেবা দেবে। শুধু কলকাতা নয়, সারা রাজ্যের জন্যে এই পরিষেবা চালু করা হচ্ছে। যে সব গাড়ির মালিক ডিভাইসটি ইনস্টল করবেন না তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।